২য় ওয়ান ডে ম্যাচও হেরে গেল বাংলাদেশের

 খেলাধুলা ডেস্ক: বাংলাদেশের সামনে নিউ জিল্যান্ডের দেয়া টার্গেট ছিল ২৫২ রান। ‍শুরুর দিকে বাংলাদেশের ব্যাটিংঅর্ডার বেশ আশাও জাগিয়েছিল। ১৬ রানে তামিমের ফেরার পর কিছুটা ধাক্কা খেলেও জেতার সম্ভাবনা জাগিয়ে তোলেন সাব্বির-ইমরুল, ১০৫ রানে ছিল মাত্র ১ উইকেট। কিন্তু সাব্বিরের পরে আর কেউ দাড়াতেই পারেননি। শেষ পর্যন্ত ৬৭ রানে দ্বিতীয় ওয়ানডে ম্যাচও হারতে হলো বাংলাদেশকে। এর আগে নেলসনের স্যাক্সটন ওভালে টসে জিতে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয় মাশরাফি বাহিনী। প্রথমে ব্যাট করতে নেমে ৫০ ওভারে সব উইকেট হারিয়ে নিউজিল্যান্ডের সংগ্রহ দাঁড়ায় ২৫১ রান। দলের পক্ষে সর্বোচ্চ অপরাজিত ১০৯ রান করেন অপরাজিত থাকেন নেইল ব্রুম। বাংলাদেশের পক্ষে মাশরাফি বিন মুর্তজা তিনটি, তাসকিন আহমেদ ও সাকিব আল হাসান দুইটি করে, শুভাশিস রায় ও মোসাদ্দেক হোসেন একটি করে উইকেট নেন। ২৫২ রানের লক্ষ্যে ব্যাটিংয়ে নেমে ২৩ বলে ১৬ রান করে তামিম সাজঘরে ফেরেন, বাংলাদেশের স্কোর তখন ৩০/১। এরপর ইমরুল কায়েস-সাব্বিরে দৃঢ়তায় ২২তম ওভারে তিন অঙ্কে পৌঁছে রানের সংগ্রহ। জেমস নিশামকে ছক্কা হাঁকিয়ে দলকে শত রানে নিয়ে যান সাব্বির। রান আউট হয়ে ফিরে যান সাব্বির। ৩ ছক্কা আর ২ চারে ৪৯ বলে করেন ৩৮। বাংলাদেশের স্কোর তখন ১০৫/২। ৬তম ওভারে মাহমুদউল্লাহ ১ রানে বিদায় হন। কেন উইলিয়ামসনের অনেক বাইরের বলে বাজে শট খেলে শর্ট থার্ডম্যানে ব্রুমকে ক্যাচ ফিরেন সাকিব আল হাসান, স্কোরকার্ড ১২৮/৪। ৩১তম ওভারে মোসাদ্দেক মাত্র ৩ রান করে যখন ফেরেন তখন বাংলাদেশের সংগ্রহ ৫ উইকেটে ১৩৪ রান। দ্রুত উইকেট পতনের মধ্যে যোগদেন ইমরুলও। টিম সাউদির বলে ক্যাচ দেন নিল ব্রুমকে। ৬টি চারে ৫৯ রান করে ৩২তম ওভারে ইমরুল ফিরে যান। এরপর আর পেছনে তাকানোর সময় পাননি ব্যাটসম্যানরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *