নাইক্ষ্যংছড়ি গভীর জঙ্গলে আনসার ক্যাম্প থেকে লুট হওয়া অস্ত্র সাত মাস পর উদ্ধার

নুরল আলম: লুট হওয়ার দীর্ঘ সাত মাস পর কক্সবাজারের টেকনাফে আনসার ক্যাম্পের পাঁচটি অস্ত্র উদ্ধার করা হয়েছে। গতকাল সোমবার রাত থেকে মঙ্গলবার সকাল পর্যন্ত নাইক্ষ্যংছড়ির ঘুমধুম ইউনিয়নের তুমব্রু পুরানপাড়া এলাকার গভীর জঙ্গলে অভিযান চালিয়ে এসব অস্ত্রসহ বেশকিছু অস্ত্র ও গুলি উদ্ধার করে র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‍্যাব)।

আনসার ক্যাম্পে হামলা চালিয়ে অস্ত্র লুটের ঘটনায় জড়িতদের অধিকাংশই রোহিঙ্গা বলে জানিয়েছেন র‌্যাবের মহাপরিচালক বেনজীর আহমেদ। তিনি জানান, জড়িতদের মধ্য থেকে এখন পর্যন্ত আটজনকে আটক করা হয়েছে।

দুপুরে পুরানপাড়া এলাকার গভীর জঙ্গলে অস্ত্র উদ্ধার অভিযান শেষে র‌্যাব মহাপরিচালক ঘটনাস্থলেই সাংবাদিকদের সঙ্গে এসব কথা বলেন। আনসার ক্যাম্প থেকে লুট হওয়া অবশিষ্ট ছয়টি অস্ত্র উদ্ধারে তাঁদের অভিযান অব্যাহত আছে বলেও জানান র‌্যাব মহাপরিচালক।

২০১৬ সালের ১২ মে গভীর রাতে টেকনাফ উপজেলার নয়াপাড়ায় রোহিঙ্গা শরণার্থী শিবিরে আনসার বাহিনীর শালবন ব্যারাকে দুর্বৃত্তরা হামলা চালায়। এতে আনসারের এক কমান্ডার নিহত হন। দুর্বৃত্তরা ব্যারাক থেকে ১১টি অস্ত্র ও ৬৪০টি গুলি লুট করে নিয়ে যায়।

ঘটনার পর পরই জুন মাসে রফিক ডাকাতসহ পাঁচজনকে গ্রেপ্তার করা হয়। তবে সে সময় কোনো অস্ত্র উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি। ওই ঘটনার দীর্ঘ সাত মাস পর গতকাল রাতে দুজনকে আটক করে র‌্যাব। তাদের স্বীকারোক্তি অনুযায়ী নাইক্ষ্যংছড়ির গহিন অরণ্যে অভিযান চালিয়ে আরো একজনকে আটক করা হয় এবং লুট হওয়া পাঁচটি অস্ত্রসহ মোট ১০টি অস্ত্র উদ্ধার করা হয়। পাশাপাশি ১৮৯ রাউন্ড গুলিও উদ্ধার করে র‌্যাব।

ansar-arms-1সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে গতকাল রাত ৯টার দিকে উখিয়ার কুতুপালং এলাকায় অভিযান চালায় র‌্যাব। এ সময় টেকনাফের আনসার ক্যাম্পের অস্ত্র লুটের ঘটনার অন্যতম দুই হোতা খাইরুল আমিন (বড়) ও মাস্টার আবুল কালাম আজাদকে আটক করা হয়। তাদের কাছে একটি পিস্তল, একটি ওয়ান শ্যুটার গান এবং গুলি উদ্ধার করা হয়। পরে তাদের দেওয়া তথ্যমতে আনসার ক্যাম্প থেকে লুট হওয়া আরো অস্ত্র উদ্ধার করতে রাত ১১টা থেকে আটককৃতদের নিয়ে নাইক্ষ্যংছড়ির বিভিন্ন পাহাড়ে অভিযান চালায় র‌্যাব। অস্ত্রগুলো লুট করে ঘুমধুম ইউনিয়নের তুমব্রু পুরান পাড়া এলাকার গভীর জঙ্গলে পাহাড়ের খাদে গর্ত করে মাটির নিচে লুকিয়ে রাখা হয়েছিল। সেখান থেকে মাটি খুঁড়ে এসব উদ্ধার করা হয়।

অস্ত্র উদ্ধারের জন্য র‌্যাবকে ধন্যবাদ জানান বাংলাদেশ আনসার ও ভিডিপির মহাপরিচালক মেজর জেনারেল মিজানুর রহমান খান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *