পদ্মাসেতুতে দুর্নীতির মিথ্যা অভিযোগে উন্নয়ন ব্যাহত হয়েছে

স্টাফ রিপোর্টার: পদ্মা সেতু প্রকল্পে দুর্নীতির অভিযোগ তোলায় সেতুটির নির্মাণকাজ যথাসময়ে বাস্তবায়িত হয়নি। তাই দেশের সার্বিক উন্নয়ন কর্মকাণ্ড ব্যাহত হয়েছে বলে মনে করছে মন্ত্রিসভা।

hasinaসচিবালয়ে সোমবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে মন্ত্রিসভার নিয়মিত বৈঠকে এ বিষয়ে আলোচনা হয় বলে জানিয়েছেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম।

মোহাম্মদ শফিউল আলম জানান, পদ্মা সেতুতে দুর্নীতির অভিযোগের বিষয়ে সেসময় প্রধানমন্ত্রী বলেছিলেন পদ্মা সেতু প্রকল্পে কোনো দুর্নীতি হয়নি। দুর্নীতির অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে বিশ্বব্যাংকের নিকট প্রমাণ চেয়েছিলেন কিন্তু সে পর্যন্ত তারা কোনো প্রমাণ দিতে পারেনি। সর্বশেষ গত শুক্রবার কানাডার আদালতও পদ্মা সেতুতে কোনো ধরনের দুর্নীতির প্রমাণ পায়নি।

পদ্মা সেতুতে কানাডার আদালত কোনো দুর্নীতি না পাওয়ায় বাংলাদেশের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল হয়েছে তাই প্রধানমন্ত্রীকে অভিনন্দনও জানিয়েছে মন্ত্রিসভা বলে জানান মন্ত্রিপরিষদ সচিব।

তিনি বলেন, এ রকম মিথ্যা অভিযোগে পদ্মা সেতুর কাজ থমকে না গেলে ২০১৪ সালেই পদ্মা সেতুর কাজ সম্পন্ন হতো। পদ্মা সেতু আগে হলে আমাদের জিডিপির প্রবৃদ্ধি আরও ১ দশমিক ২ শতাংশ বেড়ে যেত বলে মন্ত্রিসভায় আলোচনা হয়।

এ বিষয়ে বাংলাদেশ সরকার বিশ্বব্যাংকের বিরুদ্ধে মামলা করবে কি না কিংবা ক্ষতিপূরণ চাইবে কি না সাংবাদিকরা জানতে চাইলে তিনি বলেন, এ ব্যাপারে মন্ত্রিসভা বৈঠকে কোনো আলোচনা হয়নি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *