খাগড়াছড়িতে শিক্ষকের মোটরসাইকেল চুরির ঘটনায় ছাত্র আটক

খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি: খাগড়াছড়িতে শিক্ষকের মোটরসাইকেল চুরির ঘটনায় ছাত্র মো. রবিউল ইসলামকে(২২) আটক করেছে পুলিশ। সেই সাথে সোমবার ভোর রাতে উদ্ধার করা হয়েছে চুরি হওয়া মোটরসাইকেল ও মোটরসাইকেল চুরির বিভিন্ন সরঞ্জাম। পুলিশের দাবি রবিউল ইসলাম সংঘবদ্ধ মোটরসাইকেল চোর চক্রের সদস্য।

খাগড়াছড়ি সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক জ্ঞান জ্যোতি চাকমা জানান, ৬ ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যা ৭টার দিকে তিনি মোটরসাইকেল নিয়ে খাগড়াছড়ি শহরের মিলনপুরের বাসায় ঢুকেন। রাত ১০টার দিকে দেখেন মোটরসাইকেলটি নেই। অনেক খোঁজাখুঁজি করেও না পেয়ে ১৬ ফেব্রুয়ারি খাগড়াছড়ি সদর থানায় মামলা করেন।

খাগড়াছড়ি সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা তারেক মোহাম্মদ আব্দুল হান্নান জানান, গোপন তথ্যের ভিত্তিতে তার নেতৃত্বে এসআই আব্দুল আল মাসুদসহ পুলিশের একটি দল মোটরসাইকেলসহ মোটরসাইকেল চোর চক্রের সদস্য রবিউল ইসলামকে আটক করা হয়েছে।

এসআই আব্দুল আল মাসুদ জানান, প্রযুক্তি ব্যবহার ও গুপ্তচর নিয়োগের মাধ্যমে রবিবার রাত ১২টার দিকে অভিযান শুরু হয়। ভোর ৪টার দিকে খাগড়াছড়ি শহরের নয়নপুর এলাকা থেকে মোটরসাইকেলসহ রবিউল ইসলামকে আটক করতে সক্ষম হয়।

এ সময় তার কাছ থেকে মোটরসাইকেলের নাম্বার প্লেট, নকল চাবি ও মোটরসাইকেল চুরির বিভিন্ন সরঞ্জাম উদ্ধার করা হয়েছে।

রবিউল ইসলাম চুরির ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, ওইদিন তার স্কুল শিক্ষক বাসায় ঢুকার পরপরই সে মোটরসাইকেলটি চুরি করে নিয়ে যায়। এর পর নাম্বার পরিবর্তন করে ব্যবহারা শুরু করে। এর আগেও সে আরও বেশ কয়েকটি মোটরসাইকেল চুরির পর অন্যত্র বিক্রি করে দেয় বলেও জানায়।

খাগড়াছড়ি সরকারী সহকারী শিক্ষক জ্ঞান জ্যোতি চাকমা উদ্ধার হওয়া মোটরসাইকেলটি সনাক্ত করে বলেন, মাত্র কয়েক দিন আগে দুই লাখ টাকা দিয়ে পালসার মোটরসাইকেলটি কিনে ছিলেন। নিজের ছাত্র এভাবে মোটরসাইকেলটি চুরি করবে তা কল্পনা করতেও কষ্ট হচ্ছে।

পুলিশের একটি সূত্র জানায়, খাগড়াছড়িতে গত দুই বছরে অন্তত তিন ডজন মোটরসাইকেল চুরির ঘটনা ঘটেছে। এ সময় বেশ কয়েকটি হত্যাকাণ্ডও ঘটেছে। তবে উদ্ধার হয়েছে খুব কম সংখ্যক।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *