শহীদ মিনারে হাজারো শিক্ষার্থী ও জনতার ঢল : গুইমারায় বর্ণাঢ্য প্রভাত ফেরী

0আল-মামুন: ‘আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো একুশে ফেব্রুয়ারি আমি কি ভুলিতে পারি’ মুখে মুখে এ গান আর হাতে হাতে ফুল নিয়ে গুইমারার কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে ঢল নামে শিক্ষার্থীসহ হাজারো মানুষের। নানা রঙের ফুল হাতে নিয়ে আসা শিক্ষার্থীদের পদচারনায় মুখরিত হয়ে ওঠে গুইমারা শহীদ মিনার প্রাঙ্গণ।

রাত ১২টা ১মিনিটে গুইমারা উপজেলা আ’লীগের সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম ও সাধারণ সম্পাদক মেমং মারমার নেতৃত্বে আ’লীগের সকল অঙ্গ-সহযোগী সংগঠন গুলো শহীদ মিনারে পূষ্পমল্য অর্পন করেন।

পরে সকাল ৯ টার দিকে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীসহ শিক্ষকদের সাথে নিয়ে শহীদ মিনারে পুস্পমাল্য অর্পণ করে ভাষা শহীদদের02 প্রতি পৃথক পৃথক ভাবে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন গুইমারা উপজেলা নির্বাহী অফিসার বি.এম মশিউর রহমান ও অফিসার ইনচার্জ জুবায়েরুল হক এর নেতৃত্বে উপজেলা প্রশাসন, গুইমারা কলেজ, গুইমারা মডেল উচ্চ বিদ্যালয়, গুইমারা ইসলামিয়া মাদ্রাসা, গুইমারা উপজেলা বিএনপির সভাপতি মোঃ ইউচুপ, সাধারণ সম্পাদক শেখ ইব্রাহীম, সাংগঠনিক সম্পাদক আওলাদ হোসেন বাদলসহ স্থানীয় সকল রাজনৈতিক অরাজনৈতিক সংগঠন সমূহ র‌্যালী ও আলোচনা সভায় অংশ গ্রহণ করেণ।

গুইমারা উপজেলা প্রেস ক্লাবের সভাপতি নুরুল আলমসহ স্থানীয় সকল সাংবাদিকবৃন্দ পূষ্পমল্য দিয়ে শহীদদের প্রতি শ্রোদ্ধা নিবেদন করেন।

এসময় উপস্থিত ছিলেন, গুইমারা উপজেলা বিএনপির সকল অঙ্গ-সহযোগী সংগঠন গুলোর নেতৃবৃন্দরা, গুইমারা কলেজের অধ্যক্ষ মোঃ নাজিম উদ্দিন, গুইমারা মডেল উচ্চ বিদ্যালয় প্রধান শিক্ষক শুশীল রঞ্জন পাল, গুইমারা ইসলামিয়া মাদ্রাসার প্রধান শিক্ষক জায়নুল আবেদীনসহ প্রমূখ।

সকাল সাড়ে ৯ টায় পূষ্পমল্য অর্পনের পরপরই উপজেলা প্রশাসনের উদ্ধোগে প্রভাত ফেরী গুইমারা কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার থেকে বের করে গুইমারা রিজিয়নসহ গুইমারার প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষীন করে গুইমারা অস্থায়ী কলেজ ক্যাম্পাসের সামনে গিয়ে শেষ হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *