গুইমারা উপজেলা নির্বাচনী প্রচারনায় জেলা বিএনপির নেতাদের সাথে নিয়ে উঠান বৈঠকে বিএনপির প্রার্থীরা

খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি, অপরাধ সংবাদ: খাগড়াছড়ি জেলার নব সৃষ্ঠ গুইমারা উপজেলা নির্বাচনে বিএনপির নির্বাচনী প্রচারনায় জেলা বিএনপির নেতাদের সাথে নিয়ে উঠান বৈঠকে বিএনপির প্রার্থীরা। এ উপজেলায় জয়ের লক্ষেকে টার্গেট নিয়ে মাঠে নেমেছে (ধানের শীষ) প্রতিক নিয়ে বিএনপির মনোনিত চেয়ারম্যান মো: ইউচুপ, ভাইস চেয়ারম্যান ধানের শীষ প্রতিক নিয়ে পূর্ন্য কান্তি ত্রিপুরা ও হ্লাউচিং মারমা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী।

আগামী ৬ মার্চ প্রথম বারের মত অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া গুইমারা উপজেলা নির্বাচন। ইতিমধ্যে উৎসবের আমেজ ছড়িয়ে পড়েছে পুরো গুইমারা উপজেলায়। ৩ চেয়ারম্যান প্রার্থীর প্রতিদ্ধন্ধীতার মাঠে। শান্তিপূর্ণ ভোট গ্রহণের আড়ালে জাল ভোটের কারসাজি নিয়েও শঙ্খিত জাতীয় বৃহত্তর রাজনৈতিক দল বিএনপির মনোনিত প্রার্থী ও স্বতন্ত্র প্রার্থীরা।

আজ বিকেলে লুদ্যাইকা পাড়া নামক স্থানে জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি কংচাইরী মাষ্টার,জেলার মারমা ঐক্য পরিষদের নেতারাসহ বিএনপির চেয়ারম্যান প্রার্থী মো: ইউচুপ, হ্লাউচিং মারমা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী, বিএনপি ও মারমা ঐক্য পরিষদের নেতৃ বৃন্দ ও এলাকার গন্য মান্য ব্যক্তিরা উপস্থিত ছিলেন।

বিএনপির প্রার্থীরা গুইমারাবাসীর প্রত্যাশা পুরণের প্রতিশ্রুতি দেন। দলের নেতা কর্মীদের নির্বাচনী প্রচারনায় একযোগে কাজ করার আহব্বান জানিয়ে বলেন পাহাড়ী-বাঙ্গালী সকল সম্প্রদায় মিলে মিশে ধানের শীষ প্রতিকে ভোট দিয়ে দেশ নেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার হাতকে শক্তি শালী করার আহব্বান জানান।

বিএনপি ধানের শীষ প্রতিক নিয়ে মাঠে থাকা মো: ইউচুপের রাজনৈতিক ভাবে যেমনি দূরদর্শী তেমনি ভদ্র,শিক্ষিত ও যোগ্য ব্যক্তিত্বের অধিকারী হিসেবে রয়েছে সুখ্যাতি। অন্যদিকে জাতীয় প্রতিকে নির্বাচন হওয়ায় হয়েছে প্লাস পয়েন্ট। সব মিলিয়ে ৩ প্রার্থীর মধ্যে দু’জন উপজাতী হওয়ায় ভোটের হিসাব-নিকাশে জয় এখন ভাগ্যের খেলায় পরিণত হয়েছে। তবে অবাধ, সুষ্ঠ,নিরপেক্ষ ও প্রভাবহীন নির্বাচন অনুষ্ঠিত হলে জনগণের ভোটে বিএনপির জয় সুনিশ্চিত।

প্রসঙ্গত: ২০১৫ সালের ২জুন সরকারের প্রশাসনিক পূনবির্নাস সম্পর্কিত জাতীয় বাস্তবায়ন কমিটির বৈঠকে হাফছড়ি,সিন্ধুকছড়ি ও গুইমারা ইউনিয়ন নিয়ে গঠিত নবসৃষ্ট এ উপজেলায় মোট ভোটার সংখ্যা ২৭হাজার ৭শ ৮৫ জন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *