একটি বাজেট আগামীর স্বপ্ন বাস্তবায়নের রূপরেখা মাত্র : মেয়র রফিকুল আলম

খাগড়াছড়ি পৌরসভায় ৫৮ কোটি ৮৮ লাখ টাকার বাটেজ ঘোষণা

আল-মামুন: একটি বাজেট পরবর্তী স্বপ্ন বাস্তবায়নের রূপরেখা মাত্র উল্লেখ করে খাগড়াছড়ি পৌর মেয়র রফিকুল আলম বলেন, খাগড়াছড়ি জেলাকে জনবান্ধব,পর্যটন মূখী, পরিবেশ বান্ধন,যানজট মুক্ত শহর গড়তে কাজ করে যাচ্ছে এ পরিষদ। পৌরবাসীর সকলের সহযোগিতা ও ভালোবাসা আছে বলেই আয়করসহ সরকারী নানা প্রকল্পের মাধ্যমে আধুনিক শহর গড়ে তোলার কাজ এগিয়ে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে।

এসময় তিনি আরো বলেন, খাগড়াছড়ি পৌর বাসীর কথা চিন্তা করে আবাসন প্রকল্প,সড়ক উন্নয়ন,আশ্রয় কেন্দ্র ও শিশু পার্কসহ বেশ কিছু কাজ হাতে নেওয়া হয়েছে। এছাড়াও বর্তমান শহরের উন্নয়ন কাজের সমাপ্তি হলেই দৃর্শমান উন্নয়ন নজরে পড়বে সকলের চোখে। উন্নয়নের ধারা শুরু হয়েছে মাত্র শেষ হয়নি।

এছাড়াও সম্প্রতি পার্বত্য চট্টগ্রামে পাহাড় ধসের কথা উল্লেখ করে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে মেয়র রফিকুল আলম বলেন, পাহাড়ের পাদদেশে বসবাস ও অপরিকল্পিত ভাবে বসতি স্থাপনে ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। ঝুকিপুর্ণ বসতি চিহিৃত করে তালিকা করা ইতে মধ্যে শেষ হয়ে গেছে। এ নিয়ে জেলা প্রশাসকের সাথে বৈঠক হয়েছে। দ্রুত সময়ের মধ্যে এ সকল বিষয়ে সকলের জীবনের নিরাপত্তাসহ যথাযথ সেবা প্রধানে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে তিনি জানান।

শুধু তাই নয় এ পৌর এলাকার সকল খাতকে প্রাধান্য দিয়েই কাজ করা হচ্ছে বলে তিনি জানান। ২০১৭-১৮ অর্থ বছরে ৬ষ্ঠ পৌর পরিষদের ২য় বাজেটে খাগড়াছড়ি পৌরসভার ৫৮ কোটি ৮৮ লাখ ২৫ হাজার ৮৩৯ টাকার উন্মুক্ত বাজেট ঘোষণা করে।
প্রস্তাবিত বাজেটে ব্যয় ধরা হয়েছে ৫৫ কোটি ১৩ লাখ ৯০ হাজার টাকা এবং সার্বিক স্থিতি ৩ কোটি ৭৪ লাখ ৩৫ হাজার ৮৩৯ টাকা উল্লেখ করা হয়।

বুধবার খাগড়াছড়ি পৌরসভার সম্মেলন কক্ষে সকাল ১১টায় এ বাজেট ঘোষণা করেন পৌরসভার মেয়র মো: রফিকুল আলম।
বাজেট ঘোষণা অনুষ্ঠানে খাগড়াছড়ি পৌরসভার নির্বাহী প্রকৌশলী দীলিপ বিশ্বাস ও সচিব পারভিন আক্তারসহ পৌরসভার কাউন্সিলর,সাংবাদিক ও সুশীল সমাজের নেতৃবৃন্দরা উপস্থিত ছিলেন।

প্রস্তাবিত বাজেটে রাজস্ব আয় ৭ কোটি ৫৭ লাখ ৩৫ হাজার ৯১২ টাকা এবং রাজস্ব ব্যয় ৭ কোটি ৫৪ লাখ ৯০ হাজার টাকা, উদ্ধৃত ২ লাখ ৪৫ হাজার ৯১২ টাকা। উন্নয়ন খাতে সম্ভাব্য সরকারি অনুদান ২ কোটি ৫০ লাখ, বিশেষ প্রকল্প অনুদান ৪৪ কোটি ১২ লাখ ৪৯ হাজার ৬৯০ টাকা। মূলধন আয় ৪ কোটি ৫৫ লাখ ৪ হাজার ৪৩১টাকা। মূলধন ব্যয় ৯৩ লাখ টাকা।

বাজেট বাস্তবায়নে মেয়র রফিকুল আলম পৌরবাসীর সহায়তা কামনা বলেন, সকলের সহযোহিতা পেলে আরো খাগড়াছড়ি শহর আধুনিক ও পরিকল্পিত নগরিতে রূপ সম্ভব এবং খাগড়াছড়ি হবে বাংলাদেশের অন্যতম আধুনিক পৌরসভা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *