বড়পিলাকে গৃহবধুকে মারধর,বাড়ী লুটপাটের অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক: খাগড়াছড়ির গুইমারা উপজেলার বড়পিলাক এলাকায় এক গৃহবধুকে বাড়ীঘর থেকে বিতাড়িত করে জায়গা দখলের উদ্দেশ্যে প্রতিহিংসার জের ধরে বেদড়ক মারধরের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ নিয়ে খাগড়াছড়ি আমলী আদালতে একটি মামলা হয়েছে। এ ঘটনার জের ধরে সম্প্রতি আবারো “পশ্চিম বড়পিলাক(বদরপুরের জায়গা) এলাকার মৃত শহীদুল ইসলামের স্ত্রী আলেয়া বেগম এর বাড়ীতে ব্যাপক লুটপাট চালায় সংঘবন্ধ চক্রটি।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, গত ৪জুন ২০১৭ তারিখে আলেয়া বেগম তার শারীরিক অসুস্থতার কারণে মাটিরাঙ্গা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা নিতে গেলে এই সুযোগকে কাজে লাগিয়ে বাড়িতে প্রবেশ করে সকল আসবাবপত্র ভাংচুর,নগদ মোটা অঙ্কের অর্থসহ ব্যাপক লুটপাট করে বলে জানান আলেয়া বেগম। গৃহবধু আলেয়া বেগম এ ঘটনার জন্য-কাউসার লিডার (৬০),জামাল উদ্দিন (২৮), শাহ জাহান ভূইয়া (৬৫), মিজানুর রহমানসহ ৫/৬ জনকে দায়ী করেন।  

এলাকার স্থানীয় বাসিন্দা মফিজুর রহমান বলেন, কোন অসহায় নারীকে পুরুষ দ্ধারা মারধর ও লুটপাটের ঘটনা অমানবিক। এ ঘটনার জন্য জড়িতদের বিরুদ্ধে তিনি প্রশাসনের হস্থক্ষেপসহ প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে প্রশাসনের নিকট জোর দাবী জানান।   

এ বিষয়ে অভিযোগকারী আলেয়া বলেন, এলাকায় শান্তি-শৃঙ্খলা বিনষ্টকারীরা ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র ইস্যুকে সূত্র তৈরী করে আমাকে আমার জায়গা থেকে বিতাড়িত করার চেষ্টা করছে। এ ঘটনার জন্য অভিযোগকারী ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, মারধর ও লুটপাটের ঘটনায় গুইমারা থানায় লিখিত অভিযোগ করলেও তা নিয়ে রহস্যজনক কারণে কোন ব্যবস্থা নিচ্ছে না পুলিশ।

অভিযোগের পর তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই তৌহিদুর রহমান সরকার এ বিষয়ে তদন্ত শেষে আসামীদের পক্ষ নিয়ে মামলা রেকর্ড না করে আজ নয় কাল,কাল নয় পরশু করে কাল ক্ষেপণ করছে বলে তিনি অভিযোগ করেন।  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *