খাগড়াছড়িতে অবরোধে দু’গ্রুপের সংঘর্ষ ॥ অবরোধ প্রত্যাহার

নুরুল আলম:: খাগড়াছড়ি জেলা পরিষদের শিক্ষক নিয়োগে দুর্নীতির ও পরীক্ষা বাতিলের দাবী সুষম উন্নয়ন ও দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটির ডাকা টানা ৩ দিনের অবরোধে প্রথম দিনে অবরোধকারীদের সাথে সংঘর্ষ হয়েছে অবরোধ বিরোধী এমপি সমর্থিত গ্রুপের নেতাকর্মীদের।

মঙ্গলবার বেলা ১১টায় শহরের চেঙ্গী এস্কয়ার এলাকায় এমপি সমর্থিত গ্রুপের সাবেক খাগড়াছড়ি পৌর কমিশনার হেলালের নেতৃত্বে পানছড়ি উপজেলা থেকে অবরোধ ভঙ্গ করে একটি গাড়ী বহর জেলা সদরে প্রবেশের চেষ্টা করলে অবরোধকারীদের সাথে বাকবিতন্ডা বাদে। পরে তা এক পর্যায়ে সংঘর্ষে রূপ নেয়। এ ঘটনায় উভয় পক্ষের ১২ নেতাকর্মী সমর্থক আহত হয়েছে বলে জানা গেছে। বর্তমানে খাগড়াছড়ি জেলা শহরে আতঙ্ক বিরাজ করছে। গুরুত্বপুর্ণ পয়েন্ডগুলোতে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। এ ঘটনার জন্য এক পক্ষ অন্যপক্ষকে দায়ী করছে।

খাগড়াছড়ি পৌর মেয়র রফিকুল আলম বলেন, খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা সুষম উন্নয়ম ও দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটির ডাকে ৩ দিনের অবরোধে প্রথম দিন সুন্দর ভাবেই চলছিল। হঠাৎ এমপি সমর্থিত গ্রুপের হেলালের নেতৃত্বে অজাচিত ভাবে পিকেটারদের উপর হামলা চালানো হয়। পরে আত্মরক্ষাতে তাদের জবাব দিলে চেঙ্গী স্কায়ার ও মহাজানপাড়া এলাকায় ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। এছাড়াও টানা ৩ দিনের অবরোধ প্রত্যাহারের বিষয়টি নিশ্চিত করে মেয়র রফিকুল আলম বলেন, প্রশাসনের অনুরোধ ও জনগণের কথা বিবেচনা করে অবরোধ প্রত্যাহার করা হয়েছে।

এদিকে হামলার ঘটনার জন্য অবরোধকারীদের দায়ী করে হেলাল বলেন, খাগড়াছড়িতে সুষম উন্নয়ন ও দূর্নীতি প্রতিরোধ কমিটির বিরুদ্ধে একটি সংবাদ সম্মেলনে অংশ নিতে খাগড়াছড়ি আসছিল এ সময় চেঙ্গী এস্কয়ার এলাকায় অবরোধকারীদের হামলায় পানছড়ি উপজেলার জনপ্রতিনিধি কিরণ মারমা,পানছড়ি ছাত্রলীগের রুবেলসহ ৭/৮ জন আহত হয়েছে বলে তিনি দাবী করেন। এ ঘটনার জের ধরে খাগড়াছড়ি জেলা শহরে একটি প্রতিবাদ মিছিল করেছে এমপি সমর্থিত গ্রুপটি। কদমতলী এলাকা থেকে শুরু করে মিছিলটি সড়ক ও জনপদ অফিসের সামনে আসলে পুলিশ পরিস্থিতি অবনতির আশঙ্কায় তাদের গুড়িয়ে দেয়।

এদিকে পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রনালয় থেকে “খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পরিষদের চলামান শিক্ষক নিয়োগের ক্ষেত্রে অনিয়মের অভিযোগ তদন্ত করে আগামী ২ সপ্তাহের মধ্যে প্রতিবেদন দাখিলের জন্য একটি কমিটি গঠন করে দেওয়া হয়েছে। এতে পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রনালয়ের অতিরিক্ত সচিব মানিক লাল বনিককে আহবায়ক, উপসচিব আনোয়ারুল হাকিম ও সিনিয়র সহকারী সচিব মিস মকিমা বেগমকে সদস্য করা হয়েছে।

এছাড়াও খাগড়াছড়ি জেলা প্রশাসক রাশেদুল ইসলামের সভাপতিত্বে অবরোধ আহবানকারী খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা সুষম উন্নয়ন ও দূর্নীতি প্রতিরোধ কমিটির আহবায়ক সদর উপজেলা চেয়ারম্যান চঞ্চুমণি চাকমা,সদস্য সচিব খাগড়াছড়ি পৌর মেয়র রফিকুল আলম ও পানছড়ি উপজেলা চেয়ারম্যান সর্বোত্তম চাকমা ও খাগড়াছড়ি জেলা পরিষদের শিক্ষক নিয়োগ কমিটির আহবায়ক মংক্যচিং চৌধুরী,সদস্য আ: জব্বার ও নির্মলেন্দু চৌধুরীসহ বিভিন্ন প্রশাসনের উপস্থিতিতে সকলের অনুরোধে ৩ দিনের অবরোধের প্রথম তিন দুপুর থেকে অবরোধ প্রত্যাহার করা হয়।

খাগড়াছড়ি সদর মডেল থানার অফিসার্স ইনচার্জ তারেক মো: আব্দুল হান্নান সংঘর্ষের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, বর্তমানে পরিস্থিতি স্বাভাবিক ও পুলিশের নিয়ন্ত্রণে রয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *