আলোচিত বাংলাদেশ ক্রাইম নিউজ পার্বত্য চট্টগ্রাম ব্রেকিং নিউজ রাজনীতি

মানিকছড়িতে বিএনপিকর্মীকে আ’লীগপন্থী ৪ মেম্বার ও ক্যাডারদের বেধড়ক মারধর

বিশেষ প্রতিনিধি:: খাগড়াছড়ির মানিকছড়ি উপজেলার বড়ডলু এলাকায় রাজনৈতিক প্রতিহিংসা আর গ্রাম সালিশে অন্যায়ের প্রতিবাদ করাসহ বাকবিতন্ডাকে কেন্দ্র করে ইসমাইল হোসেন নামের এক বিএনপিকর্মীকে বেধড়ক ভাবে মারধর করেছে স্থানীয় ৪ মেম্বার ও তাদের লালিত আওয়ামীলীগের ১৫/২০জন ক্যাডাররা। বুধবার দুপুরে বড়ডলু দোকান এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় গুরুত্বর আহত ইসমাইলের স্থানীয়রা উদ্ধার করে প্রথমে মানিকছড়ি উপজেলা সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলেও ৪ ঘন্টা অতিবাহিত হওয়ার পর তার জ্ঞান না ফেরায় আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করে কতব্যরত চিকিৎসক।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে মানিকছড়ি থানার অফিসার ইনচার্জ মো: রশিদ জানান, বড়ডলু এলাকায় এক ব্যাক্তি মারধরের ঘটনাটি সঠিক পুলিশ ঘটনা স্থলে গিয়েছে। তার পরিবারের পক্ষ থেকে লিখিত কোন অভিযোগ পাওয়া যায়নি। অভিযোগ পেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে তিনি জানান।

জানা যায়, বড়ডলা এলাকার শাহেব আলীর দোকান সংলগ্ন এলাকায় ইসমাইলের বোনের সাথে এক ব্যক্তির ভুমি বিরোধের জের ধরে অবৈধ ভাবে বিচারের নামে ইসলাইলের বোনে জায়গা দখলের প্রতিবাদ করায় তার উপর ক্ষিপ্ত হয়ে উঠে আওয়ামীলীগপনন্থী চার মেম্বার। এক পর্যায়ে সিমানা বিরোধ তা ইসমাইলের কারণে বিচার মানেনী দাবী করে তাকে বাড়ী থেকে ডেকে এনে প্রথম বর্তমান চেয়ারম্যানের দায়িত্বপ্রাপ্ত একসুট্টাপাড়ার মেম্বার বাহার মেম্বার,তিনট্যহরী শিবিরের মেম্বার জাহাঙ্গীর,বড়তলীর মোশাররফ মেম্বার,বড়ডলুর জয়নাল মেম্বার ইসমাইলকে বেদড়ক মারধর করে।

এক পর্যায়ে পূর্বের রাজনৈতিক প্রতিহিংসাকে কাজে লাগিয়ে স্থানীয় আওয়ামী,ছাত্রলীগ,যুবলীগের ক্যাডারদের দিয়ে মেম্বারদের উপস্থিতিতে বেপোরোয়া মারধর করে। এতে সে অজ্ঞান হয়ে পড়ে। পরে তাকে স্থানীয়রা উদ্ধার করে মানিকছড়ি ও পরে চট্টগ্রাম মেডিকেল হাসপাতালে নিয়ে যায়। তবে আহত ইসমাইলকে হাসপাতালে নেওয়ার পরও আওয়ামীলীগের নেতাকর্মীরা হামলার চেষ্টা করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

মুলত সে বিএনপির একনিষ্ঠকর্মী হওয়ায় দীর্ঘ দিন ধরে তার উপর নির্যাতন চালিয়ে আসছে স্থানীয় আওয়ামীলীগ,যুবলীগ,ছাত্রলীগ নামধারী বেশ কয়েক জন ক্যাডার। সম্প্রতি সে ফেইজ বুকে বেগম জিয়াকে নিয়ে কারামুক্তির দাবীতে স্ট্যাটাস দেওয়া তার উপর ক্ষিপ্ত হয়ে উঠে তারা। তাই সুযোগ বুজে হত্যার উদ্দেশ্যে এ হামলার ঘটনা ঘটিয়ে বলে অভিযোগ তাদের।

এ ঘটনায় গুরুত্বর আহত ইসমাইলের পরিবার জড়িত সন্ত্রাসী ও জনপ্রতিনিধি নামের দলীয় ৪ মেম্বারকে আইনের আওতাই এনে দৃষ্টান্তমুলক শাস্তির দাবী জানিয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *