খাগড়াছড়িতে স্বামীকে ফাঁসাতে গিয়ে শ্রীঘরে স্ত্রী


নিজস্ব প্রতিবেদক:: খাগড়াছড়িতে সন্তানকে অপহরণের অভিযোগে সাবেক স্বামীসহ স্বজনদের জড়িয়ে মিথ্যা মামলায় ফাঁসাতে গিয়ে ফেঁসে গিয়ে শ্রীঘরে গেলেন বিলকিছ বেগম নামে এক নারী। লুকিয়ে রাখা শিশু সন্তান মো.আশিক (৯)কে উদ্ধারের পর ঘটনার মূল রহস্য বেরিয়ে এলে খাগড়াছড়ি সদর থানা পুলিশ জড়িত আদালতে প্রেরণ করলে আদালত তাকে জেল হাজতে প্রেরণ করে।

এর আগে বিলকিছ বেগমের পিতার বাড়ি থেকে লুকিয়ে রাখা শিশু সন্তান মো.আশিক (৯)কে উদ্ধার করে অভিযান চালিয়ে উদ্ধার করে পুলিশ। সূত্রে জানা যায়, ‘বিলকিছ বেগমের সাথে স্বামী জাকির হোসেনের সাথে বিচ্ছেদের পর থেকে তাকে নানা ভাবে ফাঁসানোর চেষ্টা করে বিলকিছ। চলতি মাসের ১৫ তারিখ বিলকিছ বেগম সাবেক স্বামী জাকির হোসেনের বিরুদ্ধে সন্তান আশিককে অপহরণের অভিযোগ এনে আদালতে মামলা দায়ের করে।

এ সময় বিলকিছ বেগম অভিযোগ করেন ‘জাকির ও তার স্বজনরা তাকে মারধরা করে শিশু সন্তান আশিককে অপহরণ করে। মামলা দায়ের পর ঘটনার তদন্তে নামে খাগড়াছড়ি সদর থানা পুলিশ। বুধবার পুলিশ অভিযান চালিয়ে অভিযোগকারী বিলকিছ বেগমের বাবার বাড়ি চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জ থেকে শিশু আশিককে উদ্ধার করে।

খাগড়াছড়ি সদর থানার ওসি মো.শাহাদাত হোসেন টিটো বলেন, অভিযোগের প্রেক্ষিতে পুলিশ ঘটনার তদন্তে নেমে বিলকিছ আক্তারের বাবার বাড়ি চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জ থেকে লুকিয়ে রাখা শিশু আশিককে উদ্ধার করে। সাবেক স্বামী মো.জাকির হোসেনকে ফাঁসানোর জন্য নিজ সন্তানকে বাবার বাড়িতে সে নিজেই লুকিয়ে রেখে মিথ্যা মামলা দায়ের করেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *