Home » পার্বত্য চট্টগ্রাম » রামগড়ে পুলিশের থেকে আসামি ছাড়িয়ে নিতে গ্রামবাসীর তর্কবির্তক

রামগড়ে পুলিশের থেকে আসামি ছাড়িয়ে নিতে গ্রামবাসীর তর্কবির্তক

নিজস্ব প্রতিবেদক:: খাগড়াছড়ির রামগড়ে জনসংহতি সমিতির (জেএসএস) সংস্কারপন্থী খ্যাত এমএন লারমা গ্রুপের উপজেলা সাংগঠনিক সম্পাদক মোহন কুমার ত্রিপুরার হত্যা মামলার এজাহারভূক্ত দুই আসামিকে বিজিবির সহায়তায় পুলিশ গ্রেফতার করেছে। এসময় রাপ্রু মারমাকে গ্রেফতার করার পর তাকে ছাড়িয়ে নিতে পুলিশের সাথে গ্রামবাসীর তর্কবির্তকের ঘটনা ঘটে।
পুলিশ জানায়, রামগড় কাঠ ব্যবসায়ী সমিতির অফিস সংলগ্ন রাস্তা থেকে ম্রাথোয়াই মারমা(কর্তা)কে গ্রেফতার করা হয়। এরআগে দুপুরে গোপন সূত্রে খবর পেয়ে পুলিশ ৪৩ ব্যাটালিয়নের বিজিবির সহায়তায় উপজেলার দুর্গম এলাকা বাজার চৌধুরিপাড়া থেকে মামলার ৩ নম্বর আসামি রাপ্রু মারমাকে আটক করে। আটকের খবর পেয়ে ঐ গ্রামের শতাধিক উপজাতীয় নারী পুরুষ তাকে ছাড়িয়ে নিতে পুলিশের সাথে টানাহেঁচড়ায় লিপ্ত হয়। প্রায় আধাঘন্টা এ ঘটনা চলে। পরে বিজিবির সহায়তায় পুলিশ আসামিকে থানায় নিয়ে আসে এবং শক্রবার তাদের কে খাগড়াছড়ি জেলা সদর কোর্টে প্রেরণ করা হয়।
এদিকে পুলিশের পিছুপিছু অর্ধ শতাধিক নারী গ্রামবাসীও থানায় ছুটে আসে। থানার প্রবেশদ্বারে জড়ো হয়ে তারা আটক রাপ্রুর মুক্তির দাবি জানায়।

এ অভিযোগের ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট এলাকার ইউপি সদস্য আহলু অং কার্বারী(বুলু মেম্বার) বলেন, আসামিকে ছাড়িয়ে নিতে পুলিশের সাথে টানাহেঁচড়ার ঘটনায় তারা হয়তো আঘাত পেয়েছে।

ওসি তারেক মো. আব্দুল হান্নান বলেন, আসামি রাপ্রুকে ছাড়িয়ে নিতে অর্ধ শতাধিক বিক্ষুব্ধ নারী পুলিশের ওপর যেভাবে চড়াও হয়েছে তা পুলিশের ধয্য সহকারে নিয়ন্ত্রন করেছে। ১৭ জানুয়ারি বিকালে যাদের কে গ্রেফতার করা হয় তারা হলেন, মামলার এক নম্বর আসামি ম্রাথোয়াই মারমা প্রকাশ কর্তা(৪৫) ও ৩ নম্বর আসামি রাপ্রু চাই মারমা(২৮)। কর্তা রামগড়ের ছোটখেদা গ্রামের মৃত পাইও মারমা এবং রাপ্রু বাজার চৌধুরিপাড়ার মৃত মংশে প্রু মারমার ছেলে।

উল্লেখ্য, গত সোমবার (১৪ জানুয়ারি) রামগড় পৌর এলাকার জগন্নাথপাড়ায় একটি বাড়িতে মদের আসরে অজ্ঞাতনামা বন্দুকধারীদের গুলিতে জেএসএস নেতা মোহন ত্রিপুরা নিহত হন। এ ঘটনার জন্য ইউপিডিএফ’র প্রসীত গ্রুপকে দায়ি করে তার স্বজনরা। নিহতের স্ত্রী হ্যাপী ত্রিপুরা বুধবার(১৬ জানুয়ারি) ১১জনের নাম উল্লেখ করে এবং আরও ১৫-২০জন অজ্ঞাতনামা ব্যক্তিকে আসামি করে রামগড় থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

About admin

Leave a Reply