Home » পার্বত্য চট্টগ্রাম » কক্সবাজারে সরকারি জমি বিক্রেতাদের খোঁজে মাঠে দুদক

কক্সবাজারে সরকারি জমি বিক্রেতাদের খোঁজে মাঠে দুদক

কক্সবাজার, নিজস্ব প্রতিবেদক:  কক্সবাজার শহর ও আশপাশের এলাকায় নোটারীমূলে সরকারি জমি বিক্রির মহোৎসব চলছে। এসব সরকারি জমির বেশির ভাগই পাহাড় ও টিলা শ্রেণীর হওয়ায় নির্বিচারে চলছে পাহাড় কাটা। পাহাড় কেটে গড়ে উঠছে অবৈধ বসতি।

প্রশাসন, পরিবেশ অধিদপ্তর মাঝেমধ্যে পাহাড় কাটার বিরুদ্ধে অভিযান করলেও সরকারি জমি দখল বা পাহাড় কাটা নূন্যতমও বন্ধ হয়নি। হয়েছে আরও ভয়াবহ। অবৈধ বসতি স্থাপনও চলছে প্রতিযোগিতা দিয়ে।

এবার কক্সবাজারে ভয়াবহ পাহাড় কাটা এবং সরকারি জমি বিক্রি ঠেকাতে মাঠে নেমেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। পাহাড়-টিলা শ্রেণীর সরকারি জমি অবৈধভাবে দখল করে বিক্রির সাথে জড়িতদের খোঁজে বের করতে সাঁড়াশি অভিযান শুরু করেছে। জড়িতদের খোঁজে বের করে সর্বোচ্চ শাস্তি নিশ্চিত করার কথা বলছে দুদক।

মঙ্গলবার(২৯ জানুয়ারি) শহরের লাইটহাউজ ফাতেরঘোনা এলাকায় অভিযান চালিয়েছে দুদক। ফাতেরঘোনা এলাকাটি পৌরসভার ১২ নং ওয়ার্ডের আওতাধীন। ভূমি অফিসের তথ্যমতে, সরকারি ১নং খাস খতিয়ানভুক্ত এই পাহাড়ের আয়তন ৭৮ একর। সেখানে নির্বিচারে পাহাড় কেটে গড়ে উঠেছে শতাধিক ঘরবাড়ি। এখনও ভয়াবহ পাহাড় কাটা চলছে ওই পাহাড়ে। দুদক অভিযান চালিয়ে প্রথমদিনে প্রায় ২০ টি ঘরবাড়ি উচ্ছেদ করেছে। পাহাড় কাটার সাথে জড়িত সন্দেহে তিনজনকে আটক করা হয়েছে। অবশিষ্ট অবৈধ বসতিগুলো উচ্ছেদ করা হবে।

অভিযানে নেতৃত্ব দেন দুদক চট্টগ্রাম বিভাগের উপপরিচালক লুৎফুর কবির চন্দন। অভিযানে আরও ছিলেন অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মাসুদুর রহমান মোল্লা, জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সেলিম শেখ, পরিবেশ অধিদপ্তর কক্সবাজার কার্যালয়ের সিনিয়র কেমিস্ট কামরুল হাসান ও পরিদর্শক মুমিনুল ইসলাম।

 

About admin

Leave a Reply