Home » Uncategorized » ইউপিডিএফকে বর্জন ও প্রতিরোধের আহবান ইউপিডিএফ গণতান্ত্রিকের

ইউপিডিএফকে বর্জন ও প্রতিরোধের আহবান ইউপিডিএফ গণতান্ত্রিকের

নিজস্ব প্রতিবেদক:: পার্বত্য চট্টগ্রামের সন্ত্রাস, চাদাঁবাজি খুন গুম, অপহরণ, মুক্তিপন, নির্যাতন পাহাড়ি এলকায় অশান্ত পরিবেশ সৃষ্টিকারী  প্রসীত বিকাশ খীসার নেতৃত্বাধীন ইউনাইটেড পিপলস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্টকে (ইউপিডিএফ) বর্জন ও তাদের যাবতীয় অপতৎপরতাকে প্রতিরোধের আহবান জানিয়েছে ইউপিডিএফকে বর্জন ও প্রতিরোধের আহবান ইউপিডিএফ গণতান্ত্রিকেরইউপিডিএফকে বর্জন ও প্রতিরোধের আহবান ইউপিডিএফ গণতান্ত্রিকেরইউপিডিএফ গণতান্ত্রিক।

সংগঠনের কেন্দ্রীয় তথ্য ও প্রচার সম্পাদক মিটন চাকমা বৃহস্প্রতিবার (৩১ জানুয়ারি) রাতে সংবাদ মাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতি বলেন, প্রসীত খীসার নেতৃত্বে ইউপিডিএফ পূর্ণ স্বায়ত্তশাসনের শ্লোগান তোলার পর আজ ২১ (একুশ) বছর পার হতে চললো। কিন্তু স্বায়ত্তশাসন অর্জনের কোন আভাস ইঙ্গিত এখনও নেই। অথচ পার্বত্য চুক্তি (শান্তি চুক্তি) বাস্তবায়নে প্রতি পদে পদে বাধা সৃষ্টি করে জুম্ম জনগণের দীর্ঘ সংগ্রামের যেটুকু অর্জন তাও নসাৎ করে দেওয়ার কাজ হয়েছে মাত্র।

বিবৃতিতে আরো বলা হয়েছে, ইউপিডিএফ (প্রসীত) গ্রুপ খুন, গুম, অপহরণ, মুক্তিপণ, নির্যাতন, চাঁদাবাজী, সন্ত্রাসী নানান কার্যক্রমে লিপ্ত হয়ে পড়েছে। ইউপিডিএফ (প্রসীত) দলগতভাবে জনগণ থেকে বিচ্ছিন্ন।

এখন তারা আগামী ৫ম উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ফায়দা লুটার জন্য হীন স্বাথের মিথ্যা অপবাদ দিয়ে সেনাবহিনী  অপপ্রচার চালাচ্ছে।

বিবৃতিতে বলা হয়, ২০১৮ সালের ১৭ আগস্ট আনুমানিক ১০:১৫ ঘটিকায় প্রসীত পন্থি ইউপিডিএফ সন্ত্রাসীরা মিতালী চাকমাকে জোর করে সিএনজি অটো রিক্সায় তুলে অপহরণ করে নিয়ে যায়।

প্রথমে তারা ধর্মঘর এলাকায় এবং পরে জীবতলী এলাকায় বিভিন্ন জায়গায় বন্দী করে রাখে এবং নানান ভাবে শারীরিক নির্যাতন ও পালাক্রমে ধর্ষণ করে। প্রসীতপন্থি ইউপিডিএফ তাদের সন্ত্রাসী অপকর্ম ধামাচাপা দেওয়ার জন্য আবারও বিভিন্ন ষড়যন্ত্রে লিপ্ত রয়েছে। নতুন করে মা, বোনের ইজ্জত নিয়ে ছিনিমিনি খেলে পূর্ণ স্বাত্তশাসন অর্জন হতে পারে না। তাই, প্রসীত বিকাশ খীসার নেতৃত্বকে বর্জন করুন এবং তাদের যাবতীয় অপতৎপরতাকে প্রতিরোধ করুন।


About admin

Leave a Reply