পার্বত্য চট্টগ্রাম ব্রেকিং নিউজ

প্রশাসনের নিদের্ষ অমান্য করে অবৈধ পাহার কেটে ফসলী জমি ভরাট করছে

নুরুল আলম: প্রশাসনের নিদের্ষ অমান্য করে অবৈধ পাহার কাটে ফসলী জমি ভরাট করছে। ৪ ফেব্রুয়ারী গুইমারা উপজেলাধীন জালিয়াপাড়ার পুলিশ ফাড়িঁর সামনে বিশাল পাহার কেটে মাটি নিয়ে ভরাট করছে ফসলী জমি । বিভিন্ন জাতীয় দৈনিক পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশের পর জালিয়াপাড়া পুলিশ ফাড়িঁ ইনর্চাজকে নির্দেষ দিয়েছে যে উক্ত স্থানে কোনো কাগজ পত্র ও প্রশাসনের অনুমতি না আনা পর্যন্ত সকল কার্যক্রম স্থগিত রাখার নির্দেষ দিয়েছেন গুইমারা উপজেলা নির্বাহী অফিসার পঙ্কজ বড়–য়া।
ফসলী জমি ভরাট, পাহার কাটা, অবৈধ দোকান-পার্ট নির্মাণ করীরা হলেন, মোঃ মিন্টু মিয়া(কোম্পানি) রামগড়, মোঃ নাইম উদ্দিন(সওদাগর), জালিয়াপাড়া, এবং মোঃ আব্দুর রহিম, জালিয়াপাড়া।
সড়ক ও জনপদ উপ বিভাগীয় প্রকৌশলী সবুজ চাকমা সাথে যোগাযোগ করলে তিনি জানান, সড়ক ও জনপদের জায়গায় যদি অবৈধ ভাবে মাটি ভরাট করে থাকে, স্থানীয় উপজেলা নির্বাহী অফিসারের সহযোগিতা নিয়ে তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন হবে।
গুইমারা উপজেলা নির্বাহী অফিসার পঙ্কজ বড়ূয়ার কাছে পাহার কেটে ফসলী জমি ভরাট সর্ম্পকে জানতে চাইলে তিনি বলেন, যারা অবৈধ ভাবে সরকারের নিয়মনিতী তোয়াক্কা না করে ফসলী জমি ভরাট করছে, তাদের কে কাগজ পত্র নিয়ে স্ব-শরীরে উপজেলা পরিষদ কার্যালয়ে হাজির হওয়ার নিদের্শ দেওয়া হয়েছে, কিন্তু তারা এখনো কাগজ পত্র নিয়ে হাজির হয়নি।
খাগড়াছড়ি জেলা প্রশাসক মো. শহিদুল ইসলাম জানান, কাউকে অবৈধ ভাবে পাহাড় কাটার ও ফসলী জমি ভরাট করার অনুমতি দেওয়া হয়নি । পাহাড় কাটা ও ফসলী জমি ভরাট থেকে বিরত রাখতে ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করছে প্রশাসন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *