ব্রেকিং নিউজ
Home » আলোচিত বাংলাদেশ » বাঘাইছড়িতে হত্যাকাণ্ড পরিকল্পিত: তদন্ত কমিটি প্রধান

বাঘাইছড়িতে হত্যাকাণ্ড পরিকল্পিত: তদন্ত কমিটি প্রধান

ঘটনাস্থলে ৭ সদস্যের তদন্ত কমিটি

আল-মামুন,খাগড়াছড়ি:: নির্বাচনী সরঞ্জাম নিয়ে ফেরার পথে বাঘাইছড়িতে গুলি করে খুনের ঘটনা তদন্তে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে ৭ সদস্যের তদন্ত কমিটি। এতে নেতৃত্ব দেন তদন্ত কমিটির প্রধান স্থানীয় সরকার বিভাগের পরিচালক দীপক চক্রবর্তী। বৃহস্পতিবার খাগড়াছড়ি হয়ে বাঘাইছড়ি পৌছে তদন্ত কমিটির আহতদের খোঁজ খবর নেয়। পরে নিহত ও আহতের স্বজন ও প্রত্যক্ষদর্শীদের সাথে কথা বলে ঘটনাস্থল পরির্দশন করে গণ শুনানি করে তদন্ত কমিটি।

তদন্ত কমিটির প্রধান, চট্টগ্রাম বিভাগীয় কমিশনার দীপক চক্রবর্তী এ হত্যাকা- পরিকল্পিত জানিয়ে সাংবাদিকদের বলেন, তদন্ত করে ঘটনা মুল কারণসহ ক্ষয়-ক্ষতির পরিমান নিরুপন, করা ঘটনায় সাথে জড়িত তা নিশ্চিত হওয়াসহ সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন তথ্য খুঁজে বের করে তদন্ত রিপোর্ট জমা দেওয়া হবে বলে তিনি জানান।

এর আগে গত ১৯ মার্চ চট্টগ্রাম বিভাগীয় কমিশনার দীপক চক্রবর্তীকে প্রধান ও রাঙ্গামাটির অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেটকে সদস্য সচিব করে সাত সদস্যের কমিটি গঠন করে। আগামী ১০ কর্ম দিবসের মধ্যে কমিটিকে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেয়ার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

তদন্ত কমিটির নেতৃত্ব দিচ্ছেন স্থানীয় সরকার বিভাগের পরিচালক দীপক চক্রবর্তী। কমিটির অন্য সদস্যরা হলেন- রাঙ্গামাটির অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট, পুলিশের চট্টগ্রাম রেঞ্জের অতিরিক্ত ডিআইজি, বাংলাদেশ বর্ডার গার্ডের (বিজিবি) মেজর পদমর্যাদার একজন কর্মকর্তা, পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের যুগ্ন সচিব পদমর্যাদার একজন, রাঙ্গামাটি জেলা পরিষদ এবং আনসার-ভিডিপির প্রতিনিধি।

প্রসঙ্গত: গত ১৮ মার্চ সোমবার অনুষ্ঠিত দ্বিতীয় ধাপে উপজেলা নির্বাচনের দায়িত্বপালন শেষে নির্বাচনী সরঞ্জাম নিয়ে বাঘাইছড়ি উপজেলা সদরে ফেরার পথে বাঘাইছড়ির ৯ কিলোমিটার এলাকায় গাড়িবহরে এলোপাথাড়ি ব্রাশফায়ারে প্রিজাইডিং অফিসারসহ আনসার সদস্যসহ ৭ জন নিহত হয়।

এ সময় ঘটনাস্থলেই প্রাণ হারান ৬ জন। বাকী গুলিবিদ্ধ ও আহতদের হেলিকপ্টারে যোগে চট্টগ্রাম সিএমএস এ নেওয়ার পথে মারা যান গুলিবিদ্ধ মো. তৈয়ব। বাকীরা চিকিৎসাধীন বর্তমানে রয়েছে। তাদের মধ্যে প্রিজাইডিং অফিসার শিজক কলেজের প্রভাষক আবদুল হান্নান সহ অনেকের অবস্থা এখনও আশঙ্কাজনক বলে জানা গেছে।

About admin

Leave a Reply