Home » পার্বত্য চট্টগ্রাম » উন্নয়নের পূর্বশর্ত শান্তি-সম্প্রীতি: ব্রিগেডিয়ার হামিদুল হক

উন্নয়নের পূর্বশর্ত শান্তি-সম্প্রীতি: ব্রিগেডিয়ার হামিদুল হক


পৌরসভার উন্নয়ন কাজের পরিদর্শন করলেন খাগড়াছড়ি রিজিয়ন কমান্ডার

আল-মামুন,খাগড়াছড়ি:: শান্তি-সম্প্রীতি উন্নয়নের পূর্বশর্ত মন্তব্য করে খাগড়াছড়ি রিজিয়ন ব্রিগেডিয়ার জেনারেল হামিদুল হক বলেছেন, পার্বত্য চট্টগ্রামে সকল ভাষাভাষীর মানুষের মধ্যে সম্প্রীতি মেলবন্ধন জরুরী। কারণ স্ব-স্ব অবস্থান থেকে সকলের মাঝে সৌহাদ্যপূর্ণ অবস্থান গড়ে উঠলে উন্নয়ন তরান্বিত হবে।

খাগড়াছড়ি পৌরসভার বিভিন্ন উন্নয়ন কাজের পরিদর্শন শেষে রবিবার দুপুরে পৌর কনফারেন্স রুমে মেয়র রফিকুল আলমের সভাপতিত্বে মতবিনিময় সভায় তিনি এ সব কথা কথা বলেন। এ সময় তিনি আরো বলেন, সকলকে দেশ ও জাতীর কল্যাণে নিজ নিজ অবস্থান থেকে কাজ করে যেতে হবে। পাহাড়ের মানুষের পাশে থেকে ভাগ্যন্নোয়ন ও নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী কাজ করে যাচ্ছে। আগামীতেও এ ধারা অব্যাহত রেখে পাহাড়ে স্থায়ী শান্তি প্রতিষ্ঠায় কাজ করে যাওয়ার প্রতিশ্রুতি দেন তিনি।

মতবিনিয়ম সভায় পৌরসভার উন্নয়ন কাজের প্রশংসা করে রিজিয়ন কমান্ডার এ উন্নয়নের ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে মেয়রের প্রতি আহবান জানান। এর আগে সকালে রিজিয়ন কমান্ডার ও আগত অতিথিদের ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান মেয়র রফিকুল আলম।

উন্নয়ন কাজ পরিদর্শনে অতিথিরা পৌরসভা, মিউনিসিপাল স্কুল ও কলেজ,বাসটার্মিনাল,দশবল বৌদ্ধ বিহার সড়ক, সবুজবাগ উত্তর সবুজবাগ রোড,কুমিল্লাটিলা স্যানেটারী ল্যান্ডফিল্ড,আবাসন প্রকল্প, শালবন মাষ্টার ড্রেন,কপিহাউজ ঘুরে দেখেন।

উন্নয়ন কাজ পরিদর্শন কালে খাগড়াছড়ি রিজিয়ন ব্রিগেডিয়ার জেনারেল হামিদুল হক বলেন, পৌরবাসীকে নাগরিক সেবা প্রধানের মন-মানসিকতা থেকে যে উন্নয়ন পরিচালিত হচ্ছে তার ফলে পৌরবাসীর জীবনমানের পরিবর্তন ঘটবে। সুন্দর পরিকল্পনায় পৌরবাসী পাবে তাদের কাঙ্খিত সেবা। ফলে দারিদ্রতা বিমোচনসহ অসহায় মানুষের কষ্ট লাগব হবে এবং এ জেলার উন্নয়নে গতি আরো বৃদ্ধি পাবে বলে তিনি মন্তব্য করেন। উন্নয়ন কাজের পরিদর্শনকালে রিজিয়ন কমান্ডার নবনির্মিত শালবন উচ্চ বিদ্যালয়ের জন্য ৫ লক্ষ টাকা অনুদান প্রদানের প্রতিশ্রুতি দেন।

এ সময় খাগড়াছড়ি রিজিয়নের স্টাফ অফিসার মেজর মো: সালাহ উদ্দিন, পৌর প্যানেল মেয়র-১ জাফর আহম্মদ,খাগড়াছড়ি বাজার ব্যবসায়ী সভাপতি ও টিএলসিসি সদস্য লেয়াকত আলী চৌধুরী, চেম্বার অব কর্মাসের নেতা ও টিএলসিসি সদস্য সুদর্শন দত্ত,পৌরসভার নির্বাহী প্রকৌশলী দীলিপ কুমার বিশ^াস,সচিব পারভীন আক্তার খন্দকারসহ বিভিন্ন গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গদের উপস্থিত ছিলেন।

About admin

Leave a Reply