Home » আলোচিত বাংলাদেশ » রামগড়ে দোকান মালিককে ফাঁসাতে গিয়ে ফেঁসে যাচ্ছে যুবক!

রামগড়ে দোকান মালিককে ফাঁসাতে গিয়ে ফেঁসে যাচ্ছে যুবক!


নিজস্ব প্রতিবেদক,খাগড়াছড়ি:: খাগড়াছড়ির রামগড়ে ভাড়াকৃত রেস্তোরার ব্যবসায় ব্যর্থ হয়ে জামানতের টাকার না দেওয়ার অভিযোগ তুলে ফেইজবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করে আমির সোহেল শাকিল নামের এক যুবক। তবে এ বিষয়টি নিয়ে দোকান মালিককে ফাঁসাতে অপকৌশলের চেষ্টা করা হচ্ছে বলে প্রশ্ন উঠেছে।

শুক্রবার বিষয়টি নিয়ে সরেজমিনে অনুসন্ধান করতে গেলে পাল্টা-পাল্টি এ সব অভিযোগ উঠে। আত্মহত্যার চেষ্টাকারী যুবক আমির সোহেল শাকিল রামগড়ের বাসিন্দা জৈনক কাজী মোহাম্মদ শাহারিয়ার ইসলামের কাছ থেকে ফাষ্টফুড এন্ড কনফেককশনারী দোকান করার শর্তে তিন বছরের চুক্তিতে দোকানঘর ভাড়া নেন।

এর পর খাবার হোটেল করে শর্ত লঙ্গন করেও নানা অযুহাতে রান্না ঘর করে দেওয়া জন্য মালিকের সঙ্গে ঝামেলায় জড়িয়ে পড়ে। তারপরও একে একে দুটি চুক্তিনামা করে হঠাৎ দোকান ছেড়ে দেওয়া বিষয়ে উঠপড়ে লাগে। এক পর্যায়ে দোকান প্লটের মালিককে কিছু না জানিয়ে একের পর এক বিভিন্ন জায়গা মালিকের বিরুদ্ধে বিচার চাওয়াসহ ন্দ্বদ্ধে জড়িয়ে পড়ে। এক পর্যায়ে জামানতের টাকা ফেরত না পাওয়ার অভিযোগ তুলে সে ব্যবসায়ী যুবক আত্মহত্যার চেষ্টা করে। বর্তমানে সে যুবক রামগড় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এ চিকিৎসাধীন রয়েছে।

তবে রামগড় থানার ওসি তদন্ত মো: মনির হোসেন এ ধরনের কোন অভিযোগ পাওয়া যায়নি। এ ধরনের কোন লিখিত যে কোন অভিযোগ পাওয়া গেলে অবশ্যয় তদন্ত করে ব্যবস্থা গ্রহন করা হোত। সে সাথে সব ধরনের পদক্ষেপ গ্রহন ও জনগণের সেবা দিতে পুলিশ কাজ করে যাচ্ছে বলে তিনি জানান। তবে যুবকের অভিযোগ স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের কাছে বিচার চেয়ে দফায় দফায় টাকা ফেরত হওয়ার চেষ্টা করা হলেও কোন সুরাহা হয়নি। তাই হতাশা থেকে তিনি আত্মহত্যার চেষ্টা করেন।

তিনি জানান,দোকান ঘর ছেড়ে দিলেও দোকানের জামানত বাবদ সাড়ে ৬ লক্ষ টাকা চুক্তির আগে দিতে অপারগতা প্রকাশ করেন দোকান মালিক। আর সে বিষয়ে স্থানীয় প্রশাসন,জনপ্রতিনিধিদের কাছে গিয়েও কোন বিচার পাননি তিনি। এক পর্যায়ে হতাশা থেকে গত ২০ জুন বিষ পান করে আত্মহত্যার চেষ্টা করে সে। পরিবারের অভিযোগ, দোকান মালিকের কারণে তাদের ছেলে আজ মৃত্যুপথযাত্রী। দোকান মালিক এই বিষয়ে কোন সমাধান না দেওয়ায় এ ঘটনা ঘটেছে বলে অভিযোগ করা হয়।

অপরদিকে অভিযোগ অস্বীকার করে কাজী মোহাম্মদ শাহারিয়ার ইসলাম জানান, দোকান ভাড়া চুক্তি মোতাবেক এখনো সময় পূর্ণ হয়নি। এ ছাড়াও নিজের কোন ব্যক্তিগত করণে কেউ কিছু করে যতি অন্যকে অভিযুক্ত করে বিষয়টি দু:খজনক। এছাড়াও একটি কু-চক্রি মহলের ইন্ধনে এটি একটি নাটক সাজিয়ে তার পরিবারের সম্মানহানীর চেষ্টা করছে বলে পাল্টা অভিযোগ করা হয়। সে সাথে জামানতের টাকার জন্য কেউ না এসেই নাটকিয় ও উদ্দেশ্য প্রণোদিত ভাবে তার বিরুদ্ধে একটি অভিযোগ আনা হচ্ছে বলে তিনি পাল্টা অভিযোগ করেন।

About admin

Leave a Reply