তবলছড়িতে অবৈধ এলপি গ্যাস পাম্পে গ্যাস সরবরাহ অব্যাহত … ফলোআপ-৩

বিশেষ প্রতিবেদন :: খাগড়াছড়িতে “অবৈধভাবে চলছে এলপি গ্যাস পাম্প; প্রশাসন নিরব” শিরোনামে সংবাদ প্রকাশের পর গত ০৮ অক্টোবর’২০২০ সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট ফারজানা আক্তার ববি মাটিরাঙ্গা চৌধুরীঘাট ও খাগড়াছড়ি-চট্টগ্রাম মহাসড়কের পাশে বাইল্যাছড়ি এলাকায় অননুমোদিতভাবে এলপি গ্যাস পাম্পে ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করেন।

পেট্রোলিয়াম আইন ২০১৬ মোতাবেক অননুমোদিতভাবে সিলিন্ডার গ্যাস থেকে গ্যাস বিক্রয়ের অপরাধে ২ টি মামলায় চৌধুরীঘাট এলপি গ্যাস পাম্পের মালিক আসাদুজ্জামান বকুল ও খাগড়াছড়ি-চট্টগ্রাম মহাসড়কের পাশে বাইল্যাছড়ি এলাকায় এলপি গ্যাস পাম্পের মালিক খায়রুজ্জামান বিটু’সহ দু’জনকে ৩০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড ও অবৈধভাবে গ্যাস বিক্রয়ের কাজে ব্যবহৃত সরঞ্জামাদি জব্দ করা হয়। উক্ত মোবাইল কোর্ট অভিযানে উপস্থিত ছিলেন মাটিরাঙ্গা থানার স্যানেটারি ইন্সপেক্টর মিজানুর রহমান।

মাটিরাঙ্গা সদরের আশপাশের দু’টি অবৈধ এলপি গ্যাস পাম্প প্রশাসনের হস্তক্ষেপে বন্ধ হলেও, একই উপজেলার তবলছড়ি এলাকায় আরো একটি এলপি গ্যাস পাম্প এখনো তাদের কর্মকান্ড চালিয়ে যাচ্ছে। মাটিরাঙ্গা উপজেলার তবলছড়ি মহিলা মাদ্রাসা এবং বাজারের পশ্চিম পাশে অবৈধ এলপি গ্যাস পাম্প স্থাপন করে, যৌথ মালিকানায় ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে বেলাল ও লোকমান নামক দুই ব্যক্তি। তারা এখনও পর্যন্ত তাদের ব্যবসা ঠিকভাবেই চালিয়ে যাচ্ছে। সেখানেও প্রতিদিন অবাধে সিএনজি, মাইক্রোবাস ও প্রাইভেট কার-এ অবৈধভাবে এলপি গ্যাস লোড চলছে। তাদের বিরুদ্ধেও প্রশাসনিক ব্যবস্থা গ্রহণ করা প্রয়োজন।

তবলছড়ির স্থানীয় এক মেম্বারের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, তবলছড়ি মহিলা মাদ্রাসার পাশে অবৈধ একটি এলপি গ্যাস পাম্প রয়েছে। বেলাল ও লোকমান-এর যৌথ মালিকানায় একসাথে পাম্পের এই ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *