রামগড়ে চিরকুট লিখে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রের আত্মহত্যা

নিজস্ব প্রতিবেদক:: খাগড়াছড়ির রামগড়ে চিরকুট লিখে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় রসায়ন বিভাগের ২য় বর্ষের মেধাবী ছাত্র নাইমুল হাসান মিশন (২১) নামের এক ছাত্র আত্মহত্যা করেছে। রামগড় পৌরসভার ফেনীরকুল নির্মানাধীন স্কেল লোড স্টেশনের পাশের বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। সে সেনাবাহিনীতে কর্মরত মো: কামাল উদ্দিন এর বড় ছেলে।

পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, মিশন বন্ধুদের সাথে আড্ডা দিয়ে রাতের খাবার খেয়ে ঘুমাতে যায়। রাতের কোন এক সময়ে সুইসাইড নোট (চিরকুট) লিখে খাটের উপর রেখে ফেনের সাথে রেশমি চাঁদরে ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করে। ভোরে অনেক ডাকাডাকি করেও কোন সাঁড়া পাওয়ায় দরজা ভেঙ্গে তার ঝুলন্ত লাশ দেখে স্বজনরা।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে রামগড় থানা ওসি (তদন্ত) মনির হোসেন জানান, লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য খাগড়াছড়ি পাঠানো হয়েছে। এ ব্যাপারে থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা হয়েছে।ওয়ার্ড কাউন্সিলর সাহাব উদ্দিন জানান, সে কিছুদিন মানসিক দুঃশ্চিন্তাগ্রস্থ ছিল। এজন্য তাকে ঢাকায় ডাক্তারো দেখানো হয়েছিলো। সে এলাকার ভদ্র ও ভালো ছেলে ছিলো বলেও তিনি জানান।

“আত্মহত্যার আগে লিখে যাওয়া চিরকুট (সুইসাইড নোটটি) হুবহু তুলে ধরা হলো- এই দুনিয়া আমার জন্য নয়, পারলে সবাই আমাকে ক্ষমা করে দিবেন” অপর একটি লিখেন ” আমার মৃত্যুর জন্যে কেউ দায়ী নয়, আমার বেঁচে থাকার কোন ইচ্ছা নেই, তাই আমি এই সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য হয়েছি’

আমার জন্য কেউ কখনো কষ্ট পেয়ে থাকেন পারলে ক্ষমা করে দিয়েন। আম্মু আমাকে মাফ করে দিয়েন, মিলনের খেয়াল রাখিয়েন (মিলন ছোট ভাই)। আব্বু আমাকে সফল করার জন্য অনেক কিছু সহ্য করেছেন, আমি পারিনি তাই ক্ষমাপ্রার্থী”।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *