খাগড়াছড়ি গুইমারা পার্বত্য চট্টগ্রাম ব্রেকিং নিউজ মানিকছড়ি

অবৈধ ভাবে গাছ কর্তন ও জায়গা দখলের চেষ্টা

নিজস্ব প্রতিবেদক: খাগড়াছড়ির মানিকছড়ি উপজেলার তিনটহরী এলাকার এক শ্রেণীর দুষ্টচক্র আদালতের রায় অমান্য করে জোর করে ভুমি দখল ও নানান ভাবে দাঙ্গা সৃষ্টি করে আসছে। তারা একেক সময় একেক ঘটনার সৃষ্টি করে জমির মালিক কে বিভিন্ন ভাবে হামলা, মামলা করে হয়রানি করে আসছে।
গত ১৮ মার্চ ২০২১ সকালে এরশাদ মিয়াসহ অজ্ঞাতনামা ৭/৮ জন লোকজন নিয়ে ছিদ্দিক আহাম্মদের ছেলে শাহ আলম ও আবু তালেব গংদের নামীয় জায়গা হইতে ০৩ (তিন) টি চাপালিশ গাছের মধ্যে ০১ টি কেটে ফেলে এবং অপর দুইটি কাটার জন্য প্রস্ততি নিলে তারা দেখতে পেয়ে এরশাদ মিয়াকে তা কাঁটতে বাঁধা দিলে বাধা অমান্য করে। পরে তৎক্ষণিক ৯৯৯-এ কল দিলে মানিকছড়ি থানার কর্তব্যরত পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে গাছ কাটার উপর নিষেধাজ্ঞা দেয়। এ ব্যাপারে মানিকছড়ি থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করা হয়। যা বর্তমান মানিকছড়ি থানার ওসি (তদন্ত) এর দায়িত্বে আছে।
শাক দিয়ে মাছ ঢাকার জন্য মিথ্যার আশ্রয় নিয়ে অন্য লোকের প্ররচণায় ভুয়া কাগজ পত্র সহ এরশাদ মিয়া মানিকছড়ি উপজেলা কার্যালয়ে নির্বাহী অফিসারকে লিখিত দরখাস্ত দেন। যার পরিপ্রেক্ষিতে,মানিকছড়ি উপজেলা কার্যালয় থেকে ভুমি অফিসের সার্ভেয়ার শাহজাহান সরকারসহ কয়েকজন লোক আদালতের পুর্বের রায় অমান্য করে না জানিয়ে শাহ আলম ও আবু তালেব গংদের জায়গা মাপার জন্য যায়। তৎক্ষনিক ভুক্তভোগীরা সাংবাদিক নুরুল আলমকে জানালে তিনি দ্রুত খাগড়াছড়ি থেকে মানিকছড়ি উপজেলা ভুমি অফিস কার্যালয়ে উপস্থিত হলে সার্ভেয়ার এবং উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে না পেলে পূর্বের চুড়ান্ত ভুমি সংক্রান্ত রায়ের কপিসহ একটি লিখিত অভিযোগ করেন।
পরবর্তিতে শাহজাহান সরকারের সাথে ফোনে যোগাযোগ করলে তিনি জানান, এরশাদ নামক ব্যাক্তির দেওয়া লিখিত দরখাস্তের আলোকে তিনি উক্ত স্থান পরিদর্শনে যান। তখন জানতে পারেন তা ছিদ্দিক আহাম্মদের ছেলে শাহ আলম গং দের ৪৮ নং হোল্ডিং এর ৩ দাগে(৫২৯২ দাগে ৩.৩২ একর, ৫২৯০ দাগে ০.৬৮ একর) মোট ৫ একর এবং ৫৫৪০ দাগে ১ একর এবং ৫৫৪০ দাগে ১.৯২ একর টিলা ভুমি চট্টগ্রাম বিভাগিয় কমিশনার ও হাইকোর্টের চুড়ান্ত রায়ে বন্দোবস্তী মামলা ২৪০৮/৬৬-৬৭ এর ২২/৭২ রায় প্রাপ্ত।
শাহ আলম ও আবু তালেব জানান, আইন অমান্য করে অবৈধ ভাবে ভুমি দখল করার চেষ্টা করলে ইন্দনদাতা সহ ভুয়া কাগজ লিখে যত্রতত্র অভিযোগ করে হয়রানি এবং দেওয়ানী ২১ নিয়ম ১১ আদেশ অমান্যকারীদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যাবস্থা নেওয়া হবে। এবং সরকার ঘোষিত দুর্নীতি মুক্ত দেশ গরার লক্ষে এইসব দুষ্কৃতিকারীদের বিরুদ্ধে সকল কে ঐক্যবদ্ধ ভাবে প্রতিরোধ গড়ে তোলার আহবান জানান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *