খাগড়াছড়িতে ৫ দফা দাবীতে প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির মানববন্ধন

-4-

আল-মামুন,খাগড়াছড়ি:: খাগড়াছড়িতে ৫ দফা দাবীতে মানববন্ধন করেছে বাংলাদেশ প্রাথমিক শিক্ষক সমিতি। মানববন্ধন শেষে জেলা প্রশাসক বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করেছে সংগঠনটি। বৃহস্পতিবার বিকালে সাড়ে ৩টায় খাগড়াছড়ি প্রেসক্লাবের সামনে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

বাংলাদেশ প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির সিনিয়র সহ-সভাপতি ফরিদ আহম্মদের সভাপতিত্বে মানবন্ধনে স্বাগত বক্তব্য রাখেন, খাগড়াছড়ি জেলা শাখার দপ্তর সম্পাদক আশা প্রিয় ত্রিপুরা। এ সময় অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশ প্রাথমিক শিক্ষক সমিতি খাগড়াছড়ি জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক নুরুল আবছার,যুগ্ম সম্পাদিকা দিলুয়ারা বেগম,সদর উপজেলা কমিটির সভাপতি সুমনা চাকমা, মহালছড়ি উপজেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক ধনমনি চাকমা,সহকারী শিক্ষক সমিতির যুগ্ম সম্পাদক মাইমন চাকমা,মাটিরাঙ্গা উপজেলা শাখার সভাপতি মো: এরশাদ প্রমূখ।

বক্তরা মানববন্ধনে প্রধানমন্ত্রীর দৃষ্টি আর্কষণ করে বলেন, শিক্ষকদের মানুষ গড়ার কারিগর হিসেবে আখ্যায়িত করা হলেও বাস্তবে তাদের সেভাবে মুল্যায়ন করা হচ্ছে না। ১৯৭৩ সালে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান দেশের ৩৭ হাজার বেসরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় জাতীয়করণ করেছিলন। তানই ধারাবাহিকতায় শিক্ষাবান্ধব সরকার ২৬ হাজার বেসরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় সরকারী করণ করেছে। এরই ধারাবাহিকতায় শিক্ষকদের বেতনসহ নানা সুযোগ-সুবিধার প্রতিশ্রুতি দিলেও তা বাস্তবায়ন না হওয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করে শিক্ষক নেতৃবৃন্দরা।
.1
২০১৪ সালে প্রাথমকি শক্ষিা সপ্তাহরে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে র্বতমান সরকাররে প্রধানমন্ত্রী সরকারি প্রাথমকি বদ্যিালয়রে প্রধান শক্ষিকরে পদকে তৃতীয় শ্রণেি থকেে দ্বতিীয় শ্রণেতিে উন্নীত করনরে যে ঘোষণা করছেলিনে তা দ্রুত র্পূণাঙ্গ বাস্তবায়নরে আহ্বান জানান। পাশাপাশি সহকারী শক্ষিকদরে বতেন প্রধান শক্ষিকদরে নচিরে ধাপে প্রদানরে যে দাবি তাও দ্রুততম সময়ে বাস্তবায়নরে অনুরোধ জানান।

এছাড়াও ন্যার্য অধিকার থেকে শিক্ষকরা বঞ্চিত হলে আক্ষেপ করে প্রধান শিক্ষকদের ১০ গ্রেড ও সহকারী শিক্ষকদের ১১তম গ্রেডে বেতন প্রদান, দ্রুত শতভাগ পদোন্নাতর ব্যবস্থা ও প্রাথমিক শিক্ষকদের চাকুরী নন ভোকেশনাল হিসেবে গণ্য করার দাবীসহ ৫ দফা দাবী তুলে ধরেন। এতে শিক্ষকদের বিভিন্ন সংগঠন একততা পোষন করেন। ঘন্টাব্যাপী মানববন্ধন শেষে শিক্ষকরা খাগড়াছড়ি জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী বরাবরে স্মারকলিপি পেশ করেন।   

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *