দেবাশীষ রায়কে অপসারণ ও সম্পত্তি বাজেয়াপ্তের দাবীতে খাগড়াছড়িতে মানববন্ধন-বিক্ষোভ

Khagrachari News pic 01

আল-মামুন,খাগড়াছড়ি: পার্বত্য বাঙ্গালী ছাত্র পরিষদে জামাত-শিবির পন্থিদের অবাঞ্চিত দেওয়ার দুদিনের মাথায় স্বাধীনতা বিরোধীদের বিরুদ্ধে সক্রিয় হয়ে উঠেছে অভিযুক্ত গ্রুপ। রবিবার খাগড়াছড়ি প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে এই অভিযোগ করা হয়।

ত্রিদিব-রায়-300x293ত্রিদিব রায়ের নামে সকল স্মৃতি ফলকের নামের পর পরিবর্তনের হাইকোর্টের আদেশের পর এবার তারই সন্তান রাজা দেবাশীষ রায়ের অপসারণ ও সকল সম্পত্তি বাজেয়াপ্তের দাবীতে খাগড়াছড়িতে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ করেছে পার্বত্য বাঙ্গালী ছাত্র পরিষদের একাংশ।

বুধবার সকাল ১১টায় খাগড়াছড়ি জেলা শহরের শাপলা চত্ত্বরে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। মানববন্ধন শেষে একটি বিক্ষোভ মিছিল শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে। ২২মে ২০১৭ তারিখে হাইকের্টের আদেশের আলোকে পার্বত্য চট্টগ্রামে স্বাধীনতা বিরোধী চাকমা রাজাকার ত্রিদিব রায়ের নামে নির্মিত সকল স্থাপনার নাম দ্রুত পরিবর্তনের নির্দেশ দেওয়া হয় জানিয়ে নেতৃবৃন্দরা ত্রিদিব রায়কে স্বাধীনতা রিরোধী অভিযোগ এনে এ মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিল করে।

পার্বত্য বাঙ্গালী ছাত্র পরিষদ খাগড়াছড়ি জেলা সভাপতি ইঞ্জি: মুহাম্মদ লোকমান হোসাইনের সভাপতিত্বে মানব বন্ধনে প্রধান অতিথি ছিলেন পার্বত্য বাঙ্গালী ছাত্র পরিষদের কেন্দ্রীয় কমিটির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি (সাবেক) ইঞ্জি: আব্দুল মজিদ।

মানববন্ধনে প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে বলেন, ১৯৭১সালে স্বাধীনতার সংগ্রামে এই রাজাকার ত্রিদিব রায় পাক হানাদার বাহিনীর সাথে হাত মিলিয়ে পার্বত্য চট্টগ্রাম (খাগড়াছড়ি, রাঙ্গামাটি, বান্দরবন) এ অসহায় পার্বত্য বাসীর উপর হত্যাযষ্ণ, লুটপাট, ধর্ষনসহ মানবতা বিরোধী অপরাধ পরিচালনা করেছে। সারাদেশে বর্তমান সরকারের মানবতা বিরোধীদের বিচার করলেও পার্বত্য চট্টগ্রামের অনেক রাজাকার ও যুদ্ধাপরাধী থেকে যাচ্ছে ধরা-ছোয়ার বাহিরে।
Khagrachari News pic 02
অবিলম্বে এই রাজাকারের মানবতা বিরোধী রাজাকার ত্রিদিব রায়ের মরনোত্তর বিচার ও তার নামে হাইকোর্টের আদেশ অনুযায়ী রায়ের দ্রুত কার্যকর এবং তার ছেলে রাজা দেবাশীষ রায়ের নামে সকল সম্পত্তি ও সরকারী সকল সুযোগ সুবিধা বাতিল করার দাবী জানান।

মানববন্ধনে খাগড়াছড়ি জেলা সাধারণ সম্পাদক (ভার:) আসাদ উল্লাহ আসাদ বলেন রাজা দেবাশীষ রায়, সন্তুলারমা ও প্রসীত খীসার এজেন্ডা বাস্তাবায়নের জন্য ইউএনডিপির অর্থায়নে কিছু বাঙ্গালী দালাল কাজ করে যাচ্ছে যা অত্যান্ত নেক্কার জনক। এসময় আরো উপস্থিত থেকে আরো বক্তব্য রাখেন, জেলা সহ-সভাপতি শাহাদাত হোসেন, সহ-সভাপতি নজরুল ইসলাম মাসুদ, মাটিরাঙ্গা উপজেলা সভাপতি রবিউল হোসেন, কলেজ সভাপতি শাহাদাৎ হোসেন কায়েস প্রমুখ।

মানববন্ধনে সমাপনী বক্তব্যে গণতান্ত্রিক দেশে রাজতন্ত্রের নামে এই সকল সার্কেল চীফ রাজা প্রথা বাতিল করে ও অসহায় মানুষের ভূমি থেকে খাজনা নামে চাঁদাবাজী বন্ধ ও সরকারের প্রতি জোর দাবী জানান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *