খাগড়াছড়িতে আন্তর্জাতিক সাক্ষরতা দিবস পালিত

নিজস্ব প্রতিবেদক:: “ সাক্ষরতা অর্জন করি, ডিজিটাল বিশ্ব গড়ি ”‘ এ প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে জেলা প্রশাসন ও জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিস আয়োজনে খাগড়াছড়িতে পালিত হয়েছে আন্তর্জাতিক সাক্ষরতা দিবস। দিবসটি উপলক্ষে শুক্রবার সকাল ৯ টায়  জেলা টাউন হল প্রাঙ্গন থেকে বর্ণাঢ্য র‌্যালিটি শাপলা চত্বর ও গুরুন্তপূর্ণ সড়কের প্রদক্ষিণ করে অফিসার্স ক্লাবে শেষ হয় । অফিসার্স ক্লাবে হলে এসে আলোচনা সভায় মিলিত হয়।

আলোচনা সভায় জেলা প্রশাসক মো. রাশেদুল ইসলাম সভাপত্বিতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, ২৯৮ নং সংসদ সদস্য কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা,বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক  জিয়া আহম্মেদ সুমন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আব্দুল কাদের, জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কমান্ডার রইছ উদ্দিন, সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান চঞ্চুমনি চাকমা, জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা ফাতেমা মেহের ইয়াসমিন, সদর উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত ) এডিন চাকমা, প্রাথমিক শিক্ষক সমিতি সভাপতি সত্যপ্রিয় ত্রিপুরা ও জাবারাং কল্যাণ সমিতি নির্বাহী পরিচালক মথুরা ত্রিপুরা, ইটছড়ি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় প্রধান শিক্ষক থোয়াই অংপ্রু মারমা,কারিতাস আলোঘর (লাইট হাউজ ) প্রকল্প এরিয়া কো অর্ডিনেটর মোজ্জাম্মেল হক জেলা বিভিন্ন সরকারী কর্মকর্তা ও বেসকারী এনজিও কর্মকর্তাসহ সদর উপজেলা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক ও সহকারী শিক্ষক বৃন্দরা উপস্থিত ছিলেন ।

জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা ফাতেমা মেহের ইয়াসমিন স্বাগত বক্তব্যে বলেন, শিক্ষার পূর্বশর্ত হচ্ছে সাক্ষরতা । তাই নিরক্ষর মুক্ত বাংলাদেশ গড়তে হলে সাক্ষরতার ওপর জোর দিতে হবে । যারা সাক্ষরতা জ্ঞানহীন তাদেরকে জাগ্রত করার জন্য প্রতি বছর আন্তর্জাতিক সাক্ষরতা দিবস পালন করা হয় । খাগড়াছড়িতে সাক্ষরতা বৃদ্ধি জন্য প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষকরা  নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে । তিনি  আরো বলেন প্রতি বছর জানুয়ারী  প্রথম সাপ্তাহ বিনা মূল্যে সরকারী বই বিতরণ করা হয়  সেজন্য গতবছর তুলনা এবছর ঝড়ে পড়ার হার কমেছে এবং প্রতিটি শিশু স্কুলের যাচ্ছে ।

প্রধান অতিথি বক্তব্য বলেন, শিক্ষকরা জাতি গঠনে অভিভাবক। সাক্ষরতা ও মানসম্মত শিক্ষা জন্য শিক্ষকদের পাশাপাশি দেশের সকল নাগরিকের এক যুগের কাজ করতে হবে ।১৯৯৬ সালে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ ক্ষমতায় এসেছিল, তখন বাংলাদেশের দ্রারিদ্রতা জনগোষ্ঠি কথা চিন্তা করে বর্তমান প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা প্রাথমিক শিক্ষা উন্নয়ন জন্য বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহন করে । তার মধ্যে উল্লেখযোগ্য হল বিনামূল্যে সরকারী বই , কম্পিউটার ,ও উপবৃত্তি বিতরণ করা হয় ।

আন্তর্জাতিক সাক্ষরতা দিবসে সহযোগীতা করেন, খাগড়াছড়িতে কার্যক্রম পরিচালিত এনজিও সংস্থাগুলো টিআইবি- সনাক, ব্রাক , কারিতাস, আগাপে, আনন্দ, আলো, ইপসা ও জাবারাং কল্যাণ সমিতি ও অন্যান্য বেসকারী এনজিও সংস্থা ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *