ব্রেকিং নিউজ
Home » পার্বত্য চট্টগ্রাম » রামুতে ইউপি চেয়ারম্যানের সহকারীর চার আঙ্গুল কেটে দিল দুর্বৃত্তরা

রামুতে ইউপি চেয়ারম্যানের সহকারীর চার আঙ্গুল কেটে দিল দুর্বৃত্তরা

কক্সবাজার, নিজস্ব প্রতিবেদক:: কক্সবাজারে রামু উপজেলার গর্জনিয়া ইউপি চেয়ারম্যানের ব্যক্তিগত সহকারী নুরুল হাকিম (৫০) কে ব্যাপক মারধর করে হাতের চারটি আঙ্গুলের অংশ কেটে পেলেছে দুর্বৃত্তরা।

খবর পেয়ে শুক্রবার সকাল ৮ টায় গর্জনিয়া পুলিশের এ এস আই মনজুর এলাহী ও এ এস আই নুরুল্লাহ ভুঁইয়াসহ এক দল পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। পুলিশ জানান, তাৎক্ষণিক ঘটনার সাথে জড়িত কাউকে আটক করা সম্ভব হয়নি। অভিযোগ পেলে দুর্বৃত্তদের খুঁজে বের করে আইনের আওতায় আনা হবে।

রামু থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মুহাম্মদ আবুল মনসুর সংবাদিকদের জানান, অপরাধী যতই বড় হোক না কেন  তদন্তপূর্বক প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

গর্জনিয়া ইউনিয়ন তথ্য সেবা কেন্দ্রের উদ্যোক্তা তানজিদ রাইহান জানান, বাঁকখালীর করাল গ্রাস থেকে সেতুটির এপ্রোচ ও সড়ক যোগাযোগ রক্ষার জন্যে নদীর তীরে পাহারা দেয়ার জন্য এ ঘরটি বেঁধেছিলেন চেয়ারম্যান আলহাজ্ব সৈয়দ নজরুল ইসলাম। ওই ঘরে মাঝেমধ্যে চেয়ারম্যান নিজেই রাতযাপন করেতেন। সাথে ব্যক্তিগত সহকারি নুরুল হাকিমও থাকেন।

তিনি জানান, পাহারা ঘরে সন্ত্রাসীরা চেয়ারম্যানকে খুঁজে না পেয়ে তার সহকারীকে মারধর করে আহত ও কুপিয়ে হাতের চারটি আঙ্গুলের অংশ বিচ্ছিন্ন করে ফেলেছে। বর্তমানে সে আশঙ্কাজনক অবস্থায় হাসপাতালে মৃত্যুযন্ত্রণায় ছটফট করছেন।

এ ঘটনার খবর পেয়ে চেয়ারম্যান আলহাজ্ব সৈয়দ নজরুল ইসলাম কক্সবাজার সদর হাসপাতালে ছুটে যান। গুরুতর আহত তার সহকারী নুরুল হাকিমের শারীরিক অবস্থার খোঁজ খবর নেন। নির্মম এ ঘটনার জন্য তীব্র নিন্দা ও দুঃখ প্রকাশ করেন।

এ ঘটনায় কারা জড়িত তা অতি শীগ্রই তদন্তপূর্বক বের করে তাদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান তিনি। এ সংবাদ লেখা কাল পর্যন্ত আহত নুরুল হাকিমের আশঙ্কাজনক বলে জানান চিকিৎসক।

শুক্রবার (১৮ জানুয়ারি) ভোররাতে ইউনিয়নের বাঁকখালী নদীর খালেকুজ্জামান সেতু সংলগ্ন অস্থায়ী একটি পাহারা দেওয়ার ঘরে এই ঘটনা ঘটে।

গর্জনিয়া ইউপির প্যানেল চেয়ারম্যান নুরুল আলম জানান, আহত নুরুল হাকিম  ইউনিয়নের জুমছড়ি এলাকার মৃত খলিলুর রহমানের ছেলে। তাকে অজ্ঞান অবস্থায় প্রথমে নাইক্ষ্যংছড়ি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়া হলে সেখানে অবস্থার অবনতি ঘটলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে কক্সবাজার জেলা সদর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরন করেন।

Leave a Reply

%d bloggers like this: