পাহাড়ে ভ্রাতৃঘাতি সংঘাত ভুলে শান্তির পথে হাঁঠতে হবে: তাতিন্দ্র লাল চাকমা

আল-মামুন,খাগড়াছড়ি:: খাগড়াছড়িতে পার্বত্য জন সংহতি সমিতির (এমএন লারমা) ৩৬তম মৃত্যু বার্ষিকীতে এমএন লারমাকে শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করে করেছে সংগঠনটি। রবিবার সকাল থেকে জেলা শহরের মহাজনপাড়াস্থ সূর্য্যশিখা ক্লাবের সামনে থেকে একটি শোক র‌্যালী প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে চেঙ্গী স্কয়ারে এমএন লারমার স্মৃতি ভাস্কর্যে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান জেএসএস ও এম এন লারমা সমর্থিত অঙ্গ-সংগঠনের নেতৃবৃন্দরা। পরে যৌথ মালিক সমিতির কার্যালয়ে এক স্মরণ সভার আয়োজন করা হয়।

পার্বত্য চট্টগ্রাম জন সংহতি সমিতির খাগড়াছড়ি জেলা শাখার সভাপতি আরাধ্য পাল খীসার সভাপতিত্বে কেন্দ্রীয় যুব সতিমির সভাপতি জ্ঞান প্রিয় চাকমার সঞ্চালনায় এতে প্রধান অতিথি ছিলেন, পার্বত্য চট্টগ্রাম জন সংহতি সমিতির কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক তাতিন্দ্র লাল চাকমা।

এতে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, পার্বত্য চট্টগ্রাম জন সংহতি সমিতির কেন্দ্রীয় রাজণৈতিক বিষয়ক সম্পাদক বিভূ রঞ্জন চাকমা, বিশিষ্ট সমাজ সেবক রবি শঙ্কর তালুকদার, পার্বত্য চট্টগ্রাম জন সংহতি সমিতির খাগড়াছড়ির শাখার সাধারণ সম্পাদক সিন্দু কুমার চাকমা, রাঙ্গামাটি জেলা সভাপতি চিত্র বিকাশ চাকমা,খাগড়াছড়ি মহিলা সমিতির সভানেত্রী রত্ম তঞ্চঙ্গ্যা,যুব সমিতির কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক দীপু চাকমা,পাহাড়ী ছাত্র পরিষদ কেন্দ্রীয় সদস্য দীপন চাকমা প্রমূখ।

মানবেন্দ্র নারায়ন লারমা পার্বত্য চট্টগ্রামে জুম্ম জাতির পথ প্রর্দশক উল্লেখ করে প্রধান অতিথি তাতিন্দ্র লাল চাকমা তার বক্তব্যে বলেন, সকল জুম্ম জাতিকে অগ্রগামী করে অধিকার আদায়ের সংগ্রামে নিজের জীবন উৎসর্গ করে গেছেন এমএন লারমা।

তাই এমএন লারমা দিয়ে যাওয়া নির্দেশনা অনুসারে রাজনীতিতে জুম্ম জাতির স্বার্থ সংরক্ষণ করে পার্বত্য চট্টগ্রামে ভ্রাতৃঘাতি সংঘাত ভুলে শান্তির পথে হাঁঠতে সকলকে আন্তরিক হতে হবে। এমএন লারমা পাহাড়ে অসাম্প্রদায়িক ব্যক্তিত্ব উল্লেখ করে তিনি সকল সম্প্রদায়ের জীবন নিয়ে ভাবতেন মন্তব্য করে পার্বত্য চুক্তি বাস্তবায়নে সরকারের পাশাপাশি জুম্ম জাতিকে আরো আন্তরিক হওয়ার আহবান জানান তিনি। এতে ইউপিডিএফ গণতান্ত্রিক সভাপতি শ্যামল কান্তি চাকমাসহ অঙ্গ-সংগঠনের নেতৃবৃন্দরা অংশ নেয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *