সিন্দুকছড়িতে জায়গা দখলের পাল্টাপাল্টি অভিযোগ : এক জায়গার দাবীদার দুই পরিবার

নিজস্ব প্রতিবেদক :: খাগড়াছড়ির গুইমারা উপজেলাধীন সিন্দুকছড়ি বাজার প্লট নিয়ে দুই পক্ষের পাল্টাপাল্টি দখলের চেষ্টার অভিযোগ। ময়ফুল বেগম ইতিপূর্বে উছাই মগ নামক ব্যক্তির নিকট থেকে ০.২৮ শতক জায়গা ক্রয় করে। পরে সেখানে দোকান প্লট নির্মাণ ও তার পেছনে গাছপালা সৃজন করেছে বলে দাবী করেন।

এ সময় পরিবারটি অভিযোগকারী বলেন, অপর পক্ষ জায়গা দখলের চেষ্টা, ভাংচুর ও হুমকি দিলে, গুইমারা থানায় তিনজনের নামে একটি অভিযোগ করে ময়ফুল বেগম-এর স্বামী মোহাব্বত আলী। অভিযুক্তরা হলেন,আলম শেখ, নাজমুল শেখ ও নাছির।

একই ঘটনায় আলম শেখও তিনজনকে অভিযুক্ত করে গুইমারা থানায় পাল্টা অভিযোগ করে। সে পরিবারও মোহাব্বত আলী, তার স্ত্রী ময়ফুল বেগম ও তাদের প্রতিবন্ধী ছেলে নাজিম হোসেনকেও জায়গা দখলের পাল্টা অভিযুক্ত করেন। অভিযোগের ভিত্তিতে গুইমারা থানা পুলিশ তদন্ত করে দুই পক্ষের দেওয়া দু’টি সাধারণ ডায়েরী করেন।

জানা যায়, অভিযোগকারী মোহাব্বত আলীর স্ত্রী ময়ফুল বেগমের নামে ক্রয়কৃত জায়গা, বিক্রেতা উছাই মগ, পিতা-মৃত মংছাই মগ,২২৬নং সিন্দুকছড়ি মৌজার খতিয়ান ৫/ক হতে ০.২৮ শতক ২য় শ্রেণির জমি রেকর্ড সংশোধনের মাধ্যমে ময়ফুল বেগম জমির মালিক হন।

কিন্তু অপরদিকে বিরোধকৃত জায়গা আলম শেখসহ একাধিক লোকজন খাস জায়গা হিসাবে দাবী করছে। বর্তমানে আলম শেখসহ অন্যান্য ব্যক্তিরা খাস জায়গায় দাবী করে দোকানপ্লট করে বাজার ফান্ড থেকে বন্দোবস্তীর আবেদন করেছে।

স্থানীয় সাংবাদিকরা ঘটনাস্থলে গেলে এলাকাবাসী দাবী করেন, জমির মালিক যে জায়গা ময়ফুল বেগম’র কাছে বিক্রি করেছে, তা সহকারী কমিশনার (ভূমি)’র মাধ্যমে আমিন-কানুনগো দ্বারা পরিচিহ্নিত করে বুঝিয়ে দিলে,সকল বিরোধ মীমাংসা হয়ে যায়।

এ বিষয়ে গুইমারা থানার এসআই শরিফুল ইসলাম জানান, দুই পক্ষই বিরোধকৃত জায়গা নিয়ে পাল্টাপাল্টি অভিযোগ করেছে। এই বিষয়ে তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *