খাগড়াছড়িতে ইয়াবা পাচার ও বিক্রয় প্রতিরোধ করতে অভিযাণ পরিচালনা করা প্রয়োজন

নিজস্ব প্রতিবেদক :: খাগড়াছড়ি জেলার বিভিন্ন উপজেলায় মাদকদ্রব্য সেবন ও পাচার করছে এক শ্রেণির দুষ্টচক্র ও বেকার পুরুষ-মহিলা পাচারকারীরা।

স্থানীয়দের মতে, সমতল জেলা থেকে ইয়াবা পাচার চক্র স্থানীয় অবৈধ মাদকদ্রব্য পাচারকারীদের সাথে হাতহাত করে রাতের অন্ধকারে ও দিনের বেলায় বিভিন্ন কায়দায় ইয়াবা, গাঁজা ও মদসহ মাদকদ্রব্য পাচার করে। তা ইতিমধ্যে পাচারকারীরা বিভিন্ন ডিবি, পুলিশ, সেনাবাহিনী, বিজিবি বিভিন্ন সময় অভিযান চালিয়ে এইসব মাদকদ্রব্য উদ্ধার করে সুনাম অর্জন করেছেন।

সম্প্রতি খাগড়াছড়ি সদরের কলাবাগান এলাকা থেকে গাঁজা উদ্ধার করে ডিবি পুলিশ

এলাকাবাসীরা জানান, এই জেলা থেকে বিভিন্ন কায়দায় মাদকদ্রব্য পাচারের বেলায় এক শ্রেণির দুষ্ট প্রকৃতির সিন্ডিকেট চক্রের দ্বারা মাদক পাচারের স্বর্গ-রাজ্য করে তুলেছে। বেশিরভাগ সময় দেখা যায়, সীমান্তবর্তী এলাকা (রামগড়, গুইমারা, মানিকছড়ি, মাটিরাঙ্গা, লক্ষীছড়ি) থেকে এইসব ইয়াবাসহ মাদকদ্রব্য আদান-প্রদান হয়। জেলার কিছু কিছু এলাকা থেকে মদ, গাঁজা রাতের অন্ধকারে দূরপাল্লার যাত্রীবাহী বাসের মাধ্যমে অভিনব কায়দায় পাচার করে থাকে এবং এই সকল মাদকদ্রব্য ধরা পড়লে তাদেরকে বাঁচানোর জন্য একটি চক্র কাজ করে থাকে।

সম্প্রতি যাত্রীবাহী নাইটকোচ থেকে মদ উদ্ধার করে গুইমারা থানা পুলিশ

খাগড়াছড়ি জেলার গুইমারা, রামগড় ও মানিকছড়ি উপজেলায় মাদকের বিরুদ্ধে কোন অভিযান চোখে পড়ছেনা। তাই মাদকের বিরুদ্ধে চিরুনী অভিযান পরিচালনা করা এখন খুবই জরুরী হয়ে পড়েছে বলে সুশীল সমাজ দাবী করেন।

মাদকদ্রব্য প্রতিরোধের উপায়, এই জেলায় র‌্যাব, বিজিবি, সেনাবাহিনী এবং ডিবি পুলিশ দ্বারা চিরুনী অভিযান পরিচালনা করলে, তা প্রতিরোধ সম্ভব বলে মনে করেন এই জেলার সচেতন নাগরিক সমাজ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *